মোদি-বাইডেন দারুণ কথোপকথন: ইন্দো-প্যাসিফিক ও স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে মত বিনিময়

Social Share

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং নব-নির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মধ্যে দারুণ কথোপকথন হয়েছে। এ সময় তারা ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল, স্বাস্থ্যসেবা, ওষুধ প্রস্তুত এবং টিকার ব্যাপারে মত বিনিময় করেছেন। অ্যাম্বাসেডর তারানজিত সিং গত মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে জয় পাওয়ার জন্য বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। অন্যদিকে মোদি এবং ভারতের জনগণকে দীপাবলির শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বাইডেন।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনর মধ্যে ‘অত্যন্ত উষ্ণ কথোপকথন’ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, এবং জো বাইডেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি এবং ভারতবাসীকে দীপাবলির শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তারা বৈশ্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্ব এবং ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল সম্পর্কে মত বিনিময় করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ভারত এবং সারাবিশ্ব করোনার কবলে পড়ে যে সমস্যাগুলোর মুখোমুখি হচ্ছে, সে ব্যাপারেও তারা আলোচনা করেছেন।

তারানজিত সিং আরো বলেন, স্বাস্থ্যসেবা, ওষুধ প্রস্তুত এবং টিকার ব্যাপারেও তারা আলোচনা করেছেন। জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশ এবং নবায়নযোগ্য ও সৌরশক্তি নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার ফোনালাপের সময় উভয়ে সম্মত হয়েছেন যে, পরবর্তী সময়ে বৈশ্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্বে নিজেদের প্রাধান্য, করোনা মহামারি, ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল বেশি গুরুত্ব পাবে।

বাইডেনের সঙ্গে এর আগের স্মৃতিচারণও করেছেন মোদি। বিশেষ করে ২০১৪ ও ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রে রাষ্ট্রীয় সফরে যাওয়ার বিষয়টি তিনি বাইডেনকে মনে করিয়ে দেন।

মোদি যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার ওই সময়ে বাইডেন ছিলেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট। দুই বারের সফরে তিনি বাইডেনের সঙ্গে বেশ খানিকটা সময় কাটিয়েছেন। ২০১৪ সালের সফরে মোদির জন্য দুপুরের খাবারের আয়োজন করেছিলেন বাইডেন। অন্যদিকে ২০১৬ সালে মোদির সফরে একসঙ্গে কথা বলেছেন তারা। সেসব স্মৃতি স্মরণ করিয়ে দিয়ে বাইডেনের সঙ্গে দারুণ আলোচনা সেরেছেন মোদি।

সূত্র : এএনআই