মোদির সামনেই অমিত শাহকে এক হাত নিলেন মমতা

অমিত শাহ (বামে) ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
Social Share

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপির সাবেক সভাপতি অমিত শাহকে এক হাত নিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীদের এই বৈঠক হয়। বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতি ক্ষোভ উগরে দেন মমতা।

‘আমি অমিত শাহকে সম্মান করি’, এই বলেই অমিত শাহর বিরুদ্ধে বিষোদগার শুরু করেন মমতা। মূলত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের লেখা চিঠি গণমাধ্যমে প্রকাশ করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন মমতা।

‘খবরটি প্রকাশ্যে আসার পর, আমাকে বিভিন্ন জন বিভিন্ন কথা জিজ্ঞাসা করা শুরু করেন। এই পরিস্থিতিতে আমার কী করা উচিত? আপনি সরাসরি আমার সঙ্গে কেন কথা বলবেন না? আমি আপনাকে অনুরোধ করছি অন্য রাজ্যের ক্ষেত্রেও যেন এমন ঘটনা ঘটাবেন না’, বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অমিত শাহের উদ্দেশে মমতা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোকে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন না, আর কথায় কথায় রাজ্যগুলোর দিকে সমালোচনার আঙুল তুলবেন না। রাজ্যগুলোর ওপর আস্থা রাখুন।

নরেন্দ্র মোদিকেও ছেড়ে কথা বলেননি মমতা। ‘আপনারা সর্বদা বাংলার (পশ্চিমবঙ্গ) সমালোচনা কেন করেন?’, প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন মুখ্যমন্ত্রীর। পশ্চিমবঙ্গের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে ২০ এপ্রিল কেন্দ্রীয় সরকারের একটি দল পশ্চিমবঙ্গ সফরে আসে। কিন্তু তারা আসার খবর আগে থেকে রাজ্য সরকারের কাছে ছিল না বলে অভিযোগ। ওই দল কলকাতা পৌঁছানো মাত্র ঘণ্টা তিনেক আগে মুখ্যমন্ত্রীকে এ বিষয়ে ফোন করে জানান অমিত শাহ।

সেই প্রসঙ্গও সোমবারের বৈঠকে তুলে ধরেন মমতা। বলেন, আমাদের কি তাদেরকে বাবু বলা উচিত ছিল এবং ক্রীতদাসের মতো আচরণ করা উচিত ছিল? মুখ্যমন্ত্রী সাফ জানিয়ে দেন, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল রাজ্যে পর্যবেক্ষণে আসতেই পারে, তবে রাজ্যের মুখ্য সচিব এবং স্বাস্থ্য সচিব তাদের ইশারায় উঠবেন-বসবেন এমন আশা যেন তারা না করেন।