মেট্রোরেল রুট-৫: পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি

58
Social Share

গাবতলী থেকে দাশেরকান্দি পর্যন্ত নির্মিতব্য মেট্রোরেল রুট-৫ এর দক্ষিণ অংশের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা, বিস্তারিত নকশা ও টেন্ডার সহায়তার জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)-এর মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

আজ সোমবার চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত জিন মারিন সুহু অনলাইনে সংযুক্ত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, প্রকল্প পরিচালক মো. আব্দুল ওহাব, পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের ঊধ্বতন কর্মকর্তারা  ছাড়াও ডিএমটিসিএল ও প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা যুক্ত ছিলেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, গাবতলী হতে দাশেরকান্দি পর্যন্ত উড়াল ও পাতাল সমন্বয়ে মেট্রোরেল রুট-৫: সাউদার্ন অংশের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা যাচাই, বিস্তারিত নকশা প্রণয়নসহ টেন্ডার সহায়তার জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগে ডিএমটিসিএল এবং ফ্রান্সের এগিস রেল, এসএ’র সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

প্রায় ২৮৬ কোটি টাকার চুক্তিপত্রে ডিএমটিসিএল-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক এবং পরামর্শ প্রতিষ্ঠান এগিস রেল, এসএ’র অথরাইজড রিপ্রেজেন্টেটিভ মি. প্যাসকেল লিগনার্স নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন বলে তিনি উল্লেখ করেন। চুক্তির মেয়াদ নির্ধারণ করা হয়েছে ১ জানুয়ারি ২০২০ হতে ৩০ জুন ২০২৩ পর্যন্ত।

চুক্তি অনুযায়ী এগিস রেল, এসএ’র নেতৃত্বে জাপানের ওরিয়েন্টাল কনসালট্যান্ট গ্লোবাল কোম্পানি, অস্ট্রেলিয়ার এসএমইসি ইন্টারন্যাশনাল প্রাইভেট লিমিটেড, বারতের এগিস কনসালটেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স প্রাইভেট লিমিটেডসহ বাংলাদেশের এসিই কনসালটেন্ট লিমিটেডও ডেভেলপমেন্ট কনসালটেন্ট লিমিটেড পরামর্শ প্রতিষ্ঠান হিসেবে যৌথভাবে কাজ করবে বলে মন্ত্রী জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, উড়াল ও পাতাল সমন্বয়ে গাবতলী হতে শুরু হয়ে টেকনিক্যাল- কল্যাণপুর- শ্যামলী- আসাদগেট- রাসেল স্কয়ার- কারওয়ান বাজার- হাতিরঝিল পশ্চিম- তেজগাঁও- নিকেতন-  আফতাবনগর- দাশেরকান্দি হয়ে বালিরপাড় পর্যন্ত মেট্রোরেল রুট-৫ এর সাউদার্ন অংশটি হবে প্রায় সাড়ে ১৭ কিলোমিটার দীর্ঘ।  যার প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার এলিভেটেড এবং প্রায় তের কিলোমিটার হবে আন্ডারগ্রাউন্ড। এছাড়া ১৬টি স্টেশনের মধ্যে ১২টি হবে পাতাল।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে জাপানের কারখানায় রুট-৬ এর জন্য ছয়টি যাত্রীবাহী কোচ সম্বলিত পাঁচটি মেট্রো ট্রেন সেট নির্মিত হয়েছে। জাপান থেকে সমুদ্রপথে বাংলাদেশের প্রথম মেট্রো ট্রেন সেট দ্রুত মোংলা বন্দরে পৌঁছবে।  আগামী ২৩ এপ্রিল নাগাদ মেট্রো ট্রেন সেট উত্তরাস্থ ডিপোতে পৌঁছবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। মেট্রোরেল রুট-৬ প্রকল্পের নির্মাণকাজের সার্বিক অগ্রগতি শতকরা ৬১.৩৩ ভাগ।