মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে ২৬ মার্চ

একাত্তরে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ নেয়া মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা আগামী ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে প্রকাশ করা হবে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

রবিবার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা ২ লাখ ১০ থেকে ১২ হাজারের বেশি হবে না। এ তালিকা এখনও চূড়ান্ত হয়নি। আগামী ২৬ মার্চ মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।

এক সংবাদ সম্মেলনে বিজয়ের ৪৯ বছরে এসে স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকারের একটি তালিকা প্রকাশ করে মন্ত্রণালয়।

রাজাকারদের তালিকা প্রকাশ নিয়ে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী রাজাকারদের নাম, পরিচয় ও ভূমিকা সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে জানানোর জন্যই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যাচাই-বাছাই করে ধাপে ধাপে আরও তালিকা প্রকাশ করা হবে।

১৯৭১ সালের এপ্রিলে অনানুষ্ঠানিকভাবে রাজাকার বাহিনী গঠন করা হয়। রাজাকার বাহিনীর সদস্য হিসেবে যারা ১৯৭১ সালে ভাতা নিয়েছেন বা যাদের নামে অস্ত্র ছিলো তাদের নাম পরিচয় ও ভূমিকাসহ তখন জেলা প্রশাসন ও পুলিশের গোয়েন্দা সংস্থা তালিকা সংগ্রহ করেছিলো। সেসব তথ্য উপাত্তও রাজাকারের তালিকা তৈরিতে কাজে লেগেছে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

এ সময় মন্ত্রী জানান, জামায়াতে ইসলামীসহ স্বাধীনতাবিরোধীরা ক্ষমতায় থাকাকালে অনেক রেকর্ড সরিয়ে ফেলা হয়েছে। প্রথম ধাপে ১০ হাজার ৭৮৯ রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করা হয়; যা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাচ্ছে।