‘মুক্তধারা-জিএফবি সাহিত্য পুরস্কার’ পাচ্ছেন সমরেশ মজুমদার

74
Social Share

‘বই আমার শক্তি, বই আমার মুক্তি’ স্লোগানে নিউইয়র্ক বাংলা বইমেলার ৩০ বছর পূর্তি উৎসবে বরেণ্য কথাসাহিত্যিক সমরেশ মজমুদারকে ‘মুক্তধারা/জিএফবি সাহিত্য পুরস্কার প্রদান’ করা হবে। সাহিত্যে অনন্য কীর্তির জন্য আগামী ২৮ অক্টোবর ৫ দিনব্যাপী মেলার উদ্বোধনী দিন আনুষ্ঠানিকভাবে এই পুরস্কার হস্তান্তর করা হবে। মুক্তধারার নির্বাহী পরিষদের এক বৈঠকে সর্বসম্মতভাবে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে মঙ্গলবার জানান কর্মকর্তারা।

পুরস্কারের সংবাদ জেনে সমরেশ মজুমদার কলকাতা থেকে অনুভূতি ব্যক্তকালে বলেন, ‘আটলাল্টিকের ওপার থেকে মুক্তধারা ফাউন্ডেশন আয়োজিত নিউইয়র্ক বাংলা বইমেলার পক্ষ থেকে আমাকে সাহিত্য সম্মাননা জানানোর খবরে আমি আনন্দিত। বইমেলার ৩০ বছর ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর অনুষ্ঠান স্বার্থক ও সুন্দর হোক।  মহামারী ভাইরাস থেকে পৃথিবী মুক্ত হলে নিশ্চয়ই আপনাদের সাথে আবার দেখা হবে।’

উল্লেখ্য, এর আগে মুক্তধারা সাহিত্য পুরস্কার পেয়েছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ, বাংলা একাডেমির সভাপতি শামসুজ্জামান খান, বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ, কথা সাহিত্যিক দিলারা হাশেম ও কথা সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। ৬ বছর আগে নিউইয়র্ক বইমেলা এই বার্ষিক সাহিত্য পুরষ্কার প্রবর্তন করে। বর্তমানে এর নাম মুক্তধারা/জিএফবি সাহিত্য পুরষ্কার। মুক্তধারার অন্যতম উপদেষ্টা গোলাম ফারুক ভুঁইয়ার অর্থানুকূল্যে প্রতিষ্ঠিত এই পুরষ্কারের অর্থমূল্য ২৫০০ মার্কিন ডলার।

জানা গেছে, বইমেলা শুরু হবে ২৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬ টায়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে লাগোয়ার্ডিয়া মেরিয়ট হোটেলের বলরুমে (১০২-০৫ ডিটমার্স বুলেভার্ড, ইষ্ট এলমার্ষ্ট, নিউইয়র্ক ১১৩৬৯)।  পরদিন ২৯ অক্টোবর শুক্রবার দেশ সেরা প্রকাশনা সংস্থাগুলো পশরা সাজিয়ে বসবেন জ্যাকসন হাইটের জুইশ সেন্টারে (৩৭-০৬ ৭৭ স্ট্রীট, জ্যাকসন হাইট, নিউইয়র্ক ১১৩৭২)। মেলা চলবে প্রতিদিন বিকাল ৪ টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত।

বইমেলার উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালেদ। অতিথি হিসেবে থাকবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর, লেখক-সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা হারুন হাবীব সহ অনেক লেখক-সাহিত্যক ও প্রকাশকবৃন্দ। মেলায় বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান করবেন ওয়াশিংটনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম।

লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালে শুভেচ্ছা জানাবেন একুশের গানের রচয়িতা আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরী। মেলায় মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি জাগানিয়া সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবেন কণ্ঠযোদ্ধা রথীন্দ্রনাথ রায়, কাদেরী কিবরিয়া এবং শহীদ হাসান, নবনীতা চৌধুরী, শাহ মাহবুব, কাবেরী দাস, পারমিতা মুমু। থাকবে বাফার মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা।