মিয়ানমারের পেঁয়াজ ৫৫-৬০ টাকার বেশি দামে বেচলে জেল-জরিমানা

চট্টগ্রাম নগরের খাতুনগঞ্জে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি ঠেকাতে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন। এ সময় গ্রামীণ বাণিজ্যালয় নামের একটি আড়তকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। এ সময় জানানো হয় মিয়ানমারের পেঁয়াজ ৫৫-৬০ টাকার বেশি দামে বিক্রি করলে জেল-জরিমানা করা হবে।

আজ সোমবার দুপুরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সেলিম হোসেনের নেতৃত্বে এ অভিযান শুরু হয়।

অভিযানকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, আজ আমরা দাউদকান্দিগামী একটি ট্রাকের চালান পরীক্ষা করে দেখতে পাই- ৯০ টাকা বিক্রি করা হয়েছে। তাই আড়তদারকে জরিমানা করা হয়েছে। আমদানিকারক পর্যায়ে কেউ মূল্য সন্ত্রাস করলে, কেউ দাম চাপিয়ে দিলে জেলা প্রশাসনের স্টাফ অফিসারকে জানানোর জন্য বলেছি। পাইকারিতে মিয়ানমারের পেঁয়াজ ৫৫-৬০ টাকার বেশি হলে জরিমানা-জেল হবে।

আজকের অভিযানে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপ পরিচালক শাহিদা সুলতানা, মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান, র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যরা অংশ নেন।

আজ সোমবার দুপুরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. সেলিম হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে সারাদেশে বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে। মিয়ানমার থেকে ৪২ টাকা দরে আমদানি করা পেঁয়াজ সব খরচ, লাভসহ ৬০ টাকার বেশি পাইকারি মূল্য হতে পারে না। খুচরা পর্যায়ে এটি ৭০ টাকা হওয়া উচিত। কিন্তু আড়তে ৯০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। যা অযৌক্তিক।