মিয়ানমারকে অভ্যুত্থানের ঠিক আগে বিপুল অর্থ সহায়তা আইএমএফ-এর

20
Social Share

মিয়ানমার পার্লামেন্টে নতুন সরকারের প্রথম অধিবেশন শুরু হওয়ার মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি ছিল, এমন সময় ক্ষমতা দখলে নিল সেনাবাহিনী। রবিবার দিবাগত মাঝরাতে অং সান সুচি এবং প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টকে আটক করা হয়। একইসঙ্গে এক বছরের জন্য দেশটিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

এর মধ্যে বেরিয়ে এলো আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য। জানা গেছে, অভ্যুত্থানের ঠিক আগে মিয়ানমারকে বিপুল অঙ্কের সহায়তা দেয় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। মহামারী করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবেলায় সহায়তা করার জন্য গত সপ্তাহে মিয়ানমার সরকারকে ৩৫০ মিলিয়ন ডলার পাঠিয়েছে সংস্থাটি। খবর রয়টার্সের।

এই আইএমএফের অর্থ সহয়তা দেওয়ার ঠিক পরেই নির্বাচনের অনিয়মের অভিযোগ তুলে গত সোমবার ভোরে সূর্য ওঠার আগেই অং সান সু চি ও তার দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির নেতাকর্মীদের আটক করে মিয়ানমারের প্রভাবশালী সামরিক বাহিনী।

সেনাঅভ্যুত্থানের খবর আসার পর থেকে মিয়ানমারের উপর নজর রাখছে আইএমএফ। সংস্থার এক মুখপাত্র বলেন, এ ঘটনায় দেশটির অর্থনীতি ও জনগণের ওপর এর কী প্রভাব পড়বে, তা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। আমরা ঘটনাক্রমের ওপর আমরা নজর রাখছি।’

এদিকে, মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সু চির বিরুদ্ধে অনুষ্ঠানিক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।  সেনাঅভ্যুত্থানে আটক হওয়া এই  গণতন্ত্রকামী নেত্রীকে দুই সপ্তাহের রিমান্ড দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, গত বছর নভেম্বরের নির্বাচনে অং সান সুচির এনএলডি সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে। কিন্তু সেনাবাহিনী নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ তোলে। পরে সোমবার ক্ষমতা নিয়ে নেন কমান্ডার-ইন-চিফ মিন অং লাইং।