মিনি ম্যারাথন শিশু অভির চমক

58
Social Share

কাজল আর্য, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুরে হাফ ম্যারাথনে অংশ নিতে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে তিন শতাধিক রানার উপস্থিত হন। বুধবার (১৭ মার্চ) ভোর পৌনে ৬ টার দিকে চারপাশে হালকা কুয়াশা সত্ত্বেও উপজেলার তৈলধারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ রানারদের উপস্থিতিতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। শ’ শ’ রানারের মাঝে সবার দৃষ্টি কাড়ে ৮ বছরের শিশু ওহিদুজ্জামান অভি। সে মিনি ম্যারাথনে অংশ নিতে এসেছে। তাকে দেখে বিশ্বাস না হলেও মিনিম্যারাথন শেষ করে চমক দেখায় অভি।
ওহিদুজ্জামান অভি ঢাকার কল্যাণপুর এলাকার মফিজুল ইসলামের ছেলে ও মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির ছাত্র। তার বাবাও গত তিন বছর যাবত ম্যারাথনে অংশ নেন। বাবার অনুপ্রেরণায় গত ৬ মার্চ ফরিদপুরের রাজবাড়িতে শিশু অভি ৬ কিলোমিটার দৌঁড়ে অংশ নেয়। তারই ধারবাহিকতায় বুধবার (১৭ মার্চ) মিনি ম্যারাথনে অংশ নিতে টাঙ্গাইলের সখীপুরে আসে। মিনিম্যারাথনে অংশ নিয়ে ১০ কিলোমিটার দৌঁড়াতে মিশু অভি সময় নেয় মাত্র ৫৬ মিনিট। অভির বোন মাফিয়া ইসলাম উর্মিও হাফ ম্যারাথনে অংশ নিয়ে মেয়েদের মধ্যে প্রথম হয়েছে। সে কল্যাণপুর গার্লস স্কুলের ৮ম শ্রণির ছাত্রী।
ওহিদুজ্জামান অভি জানায়, তার আব্বু ও আপু ম্যারাথনে অংশ নেয়। তাদের দেখে তারও অংশ নেওয়ার আগ্রহ সৃষ্টি হয়। তাই সে এবার সহ দুইবার ম্যারাথনে অংশ নিয়েছে। দৌঁড়াতে তার খুব ভাল লাগে। বড় হয়ে একজন ভাল রানার হতে চায় বাবা-মায়ের আদুরে শিশু অভি।
অভির বোন মাফিয়া ইসলাম উর্মি জানায়, সুস্থ দেহ থাকলে মনও ভাল থাকে। আর সুস্থদেহের জন্য দৌঁড়ানো প্রয়োজন। লেখা পড়ার পাশাপাশি সময় বের করে সে দৌঁড়ে অংশ নিয়ে থাকে। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত দৌঁড়ের মাধ্যমে সুস্থ থাকতে চায় উর্মি। তার ছোট ভাইটিও সখীপুরের মিনিম্যারাথন শেষ করেছে।
অভির বাবা মফিজুল ইসলাম জানান, ২০১৮ সাল থেকে তিনি ম্যারাথনে অংশ নিচ্ছেন। এর আগে ঢাকা ম্যারাথন, শাহিন কলেজ হাফ, বঙ্গবন্ধু ম্যারাথন ও ঢাকা নেক্সট ম্যারাথনে অংশ নিয়েছেন। তার ছেলে সখীপুরের ১০ কিলোমিটার দৌঁড়ে অংশ নিয়েছে। তাকে রানার এক্সপার্টস বানানোর ইচ্ছে রয়েছে তার।
ডেসকো বোর্ডের ডিরেক্টর ও ম্যারাথনের আয়োজক ইঞ্জিনিয়ার আতাউল মাহমুদ জানান, বাসাইল-সখীপুর থেকে মাদক, বাল্য বিয়ে ও সন্ত্রাস দূর করতে কিছু যুবকদের দৌঁড়ের সাথে সম্পৃক্ত করেছেন। তাদের সাথে নিয়ে হাফ ম্যারাথনের আয়োজন করা হয়। এ ধরণের আয়োজন ভবিষ্যতেও করা হবে। অংশ গ্রহণকারীদের মধ্যে ৮ বছরের শিশু অভির দৌঁড় দর্শক-আয়োজক সহ সকলের নজর কেড়েছে। শিশুটি ১০ কিলোমিটার দৌঁড়াবে তা কেউ কল্পনাও করেনি। কিন্তু শিশু অভি ১০ কিলোমিটার দৌঁড়েছে। তিনি শিশু অভির সফলতা কামনা করেন।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে টাঙ্গাইলের সখীপুর-বাসাইলে হাফ ম্যারাথন ও মিনি ম্যারাথনের আয়োজন করা হয়। হাফ ম্যারাথন (২১ কিলোমিটার) সখীপুরের তৈলধারা-গড়বাড়ি থেকে শুরু হয়ে ইন্দারজানি-চাটানপাড়া, ইন্দারজানি-গড়বাড়ি, তৈলধারা-মহানন্দনপুর মহিলা কলেজ সড়ক হয়ে উপজেলা পরিষদ মাঠে গিয়ে শেষ হয়।
মিনি ম্যারাথন (১০ কিলোমিটার) তৈলধারা-গড়বাড়ি থেকে শুরু হয়ে তৈলধারা-মহানন্দনপুর, মহিলা কলেজ সড়ক হয়ে উপজেলা পরিষদ মাঠে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে আলোচনা সভায় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।