মিডিয়াই আমার বাবাকে মেরে ফেলছে : ম্যারাডোনার কন্যা

আর্জেন্টিনার ফুটবল কিংবদন্তি ডিয়াগো ম্যারাডোনার স্বাস্থ্য বেশ কিছুদিন ধরেই ভালো যাচ্ছে না। একেক সময় একেক রকম খবর আসছে তার সম্পর্কে। তবে স্বাস্থ্য নিয়ে মেয়ে জিয়ান্নিনার উদ্বেগ উড়িয়ে দিলেন কিংবদন্তি ম্যারাডোনা। ভালো আছেন জানিয়ে তিনি বলেছেন, এই মুহূর্তে আর্জেন্টিনার ক্লাব জিমনাসিয়ার প্রধান কোচের দায়িত্ব উপভোগ করছেন।

সম্প্রতি মেয়ে জিয়ান্নিনা সোশ্যাল মিডিয়ায় ৫৯ বছর বয়সি ম্যারাডোনার স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। বলেছিলেন, মিডিয়ার ক্রমাগত সমালোচনা ভিতরে ভিতরে মেরে ফেলছে তার বাবাকে, যা বাইরে থেকে বোঝা যাচ্ছে না। বাবার জন্য প্রার্থনা করারও আবেদন জানিয়েছিলেন তিনি। ম্যারাডোনার সঙ্গে তার দুই মেয়ে ডালমা ও জিয়ান্নিনার সম্পর্ক ভালো নয় বলে শোনা যায়। দুই মেয়ের মা ক্লদিয়ার সঙ্গেও সম্পর্ক নেই ম্যারাডোনার।

তাই জিয়ান্নিনা পোস্ট করার কিছুক্ষণের মধ্যেই পাল্টা পোস্ট করেন ম্যারাডোনা। ভিডিও পোস্ট করে বলেন, ‘আমি মোটেই মরে যাওয়ার পরিস্থিতিতে নেই। খাটছি বলেই শান্তিতে ঘুমোতে পারি। জানি না জিয়ান্নিনা ঠিক কী বোঝাতে চেয়েছে। জানি, বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বেশি যত্ন নিতে হয়। তবে আমি এখন খুব ভাল রয়েছি।’

গত ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ডারিও অর্তিজের জায়গায় জিমনাসিয়ার প্রধান কোচ হিসেবে কাজ করছেন ম্যারাডোনা। এই মুহূর্তে সুপারলিগায় ২৪ দলের মধ্যে জিমনাসিয়া রয়েছে ২৩ নম্বরে। ম্যারাডোনার কোচিংয়ে এসেছে মাত্র দুটি জয়। দল হেরেছে ৫ ম্যাচে। আর্জেন্টিনার শীর্ষ ডিভিশন থেকে অবনমনের খাঁড়া ঝুলছে ম্যারাডোনার দলের উপরে। আর এই কারণেই প্রচারমাধ্যমে সমালোচিত হচ্ছেন ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। তবে দলকে এগিয়ে নিতে তিনি বদ্ধপরিকর।