মাহমুদুল্লাহ অবসর ও অধিনায়কত্ব নিয়ে মুখ খুললেন

63
মাহমুদুল্লাহ
Social Share

মাহমুদুল্লাহ অবসর ও অধিনায়কত্ব নিয়ে মুখ খুললেন । শেষ ম্যাচেও হলো না শেষ রক্ষা। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৮ উইকেটে লজ্জার হার দিয়েই বিশ্বকাপ মিশন শেষ বাংলাদেশের। টি-২০ বিশ্বকাপে ব্যর্থতার ষোলোকলাপূর্ণ হয়ে গেল। সুপার টুয়েলভের একটি ম্যাচেও জিততে পারলেন না মাহমুদুল্লাহরা। টানা ৫ ম্যাচ হেরে স্বপ্নের বিশ্বকাপে দুঃস্বপ্নকে সঙ্গী করে দেশে ফিরে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা।

তবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে এখনই সরে যাওয়ার পরিকল্পনা নেই মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। তবে বিশ্বকাপের ভরাডুবির পর বাংলাদেশের অধিনায়ক থাকবেন কি না সেই সিদ্ধান্ত নিজের নয় বলে মন্তব্য করেছেন। তার দাবি, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) অধিনায়কত্ব ঠিক করবে।

মাহমুদুল্লাহ বলেছেন, ‘অধিনায়কত্বের বিষয়টা আমার হাতে নেই। এটা বোর্ডের সিদ্ধান্ত। আমার তরফ থেকে আমি সব সময় চেষ্টা করেছি দলটাকে আগলে রাখার। পারফরম্যান্স আদায় করার জন্য। সম্ভবত আমার অধিনায়কত্বে ঘাটতি ছিল। পারফরম্যান্স আদায় করতে পারিনি। অধিনায়কত্ব নিয়ে সিদ্ধান্ত আসলে বোর্ড দেবে। এটা আমার হাতে নেই।’

উল্লেখ্য, জিম্বাবুয়ের হারারেতে ১৬ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে সেঞ্চুরি করেছিলেন মাহমুদুল্লাহ। সেঞ্চুরির পরপরই ম্যাচের তৃতীয় দিন ড্রেসিংরুমে নিজের অবসরের ঘোষণা দেন। যদিও এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কিছু জানাননি তিনি। কাছের মানুষদের বলেছিলেন, ‘নিজেকে প্রমাণ করে বিদায় বলেছেন তিনি।’

শেষ ম্যাচেও হলো না শেষ রক্ষা। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৮ উইকেটে লজ্জার হার দিয়েই বিশ্বকাপ মিশন শেষ বাংলাদেশের। টি-২০ বিশ্বকাপে ব্যর্থতার ষোলোকলাপূর্ণ হয়ে গেল। সুপার টুয়েলভের একটি ম্যাচেও জিততে পারলেন না মাহমুদুল্লাহরা। টানা ৫ ম্যাচ হেরে স্বপ্নের বিশ্বকাপে দুঃস্বপ্নকে সঙ্গী করে দেশে ফিরে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা।

তবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে এখনই সরে যাওয়ার পরিকল্পনা নেই মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের। তবে বিশ্বকাপের ভরাডুবির পর বাংলাদেশের অধিনায়ক থাকবেন কি না সেই সিদ্ধান্ত নিজের নয় বলে মন্তব্য করেছেন। তার দাবি, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) অধিনায়কত্ব ঠিক করবে।

মাহমুদুল্লাহ বলেছেন, ‘অধিনায়কত্বের বিষয়টা আমার হাতে নেই। এটা বোর্ডের সিদ্ধান্ত। আমার তরফ থেকে আমি সব সময় চেষ্টা করেছি দলটাকে আগলে রাখার। পারফরম্যান্স আদায় করার জন্য। সম্ভবত আমার অধিনায়কত্বে ঘাটতি ছিল। পারফরম্যান্স আদায় করতে পারিনি। অধিনায়কত্ব নিয়ে সিদ্ধান্ত আসলে বোর্ড দেবে। এটা আমার হাতে নেই।’

উল্লেখ্য, জিম্বাবুয়ের হারারেতে ১৬ মাস পর টেস্ট দলে ফিরে সেঞ্চুরি করেছিলেন মাহমুদুল্লাহ। সেঞ্চুরির পরপরই ম্যাচের তৃতীয় দিন ড্রেসিংরুমে নিজের অবসরের ঘোষণা দেন। যদিও এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কিছু জানাননি তিনি। কাছের মানুষদের বলেছিলেন, ‘নিজেকে প্রমাণ করে বিদায় বলেছেন তিনি।’