‘মাশরাফির অবসর নিয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নিতে পারি না’

Social Share

আগামী মাসেই বাংলাদেশ সফরে আসছে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল। পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী মার্চে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ছিল জিম্বাবুয়ের। কিন্তু মার্চে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকায় দুটি প্রীতি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। এজন্যই সিরিজটি এগিয়ে আনার পরিকল্পনা করছে বিসিবি। এতে আলোচনায় চলে এসেছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ওই সিরিজ দিয়েই কি আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারকে ইতি টানবেন মাশরাফি?

এবারের বাংলাদেশ সফরে ১টি টেস্ট এবং ৫টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার সূচি রয়েছে জিম্বাবুয়ের। তবে মাশরাফির জন্য ওই সিরিজে দুটি ওয়ানডে রাখার পরিকল্পনা রয়েছে। গত মে মাসেতে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে ওয়ানডে বিশ্বকাপে সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছেন অধিনায়ক মাশরাফি। এরপর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলার জন্য প্রস্তুত ছিলেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ইনজুরিতে পড়ে সিরিজ থেকে ছিটকে পড়েন। তবে বিশ্বকাপেই অবসর নেয়ার কথা ছিল মাশরাফির।

বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপন বলেছিলেন, দেশের মাটিতেই অবসর নেবেন মাশরাফি। প্রয়োজন হলে তার জন্য বিশেষ ওয়ানডে আয়োজন করা হবে। ২০০৯ সালে সর্বশেষ টেস্ট খেলেন মাশরাফি। ইতোমধ্যে টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়েছেন তিনি। জাতীয় দলের হয়ে শুধুমাত্র ওয়ানডে খেলছেন ম্যাশ।  বিশ্বকাপের পর দেশের মাটিতে কোন আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলেনি বাংলাদেশ। তবে শ্রীলঙ্কার মাটিতে তিন ম্যাচের সিরিজ খেলেছে টাইগাররা। ঐ ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল বাংলাদেশ।

তবে অফিসিয়ালি মাশরাফির অবসর নিয়ে কিছু বলেনি বিসিবি। মাশরাফির ব্যাপারে মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানান, ‘মাশরাফির অবসর নিয়ে আমরা কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। এমন সিদ্ধান্ত তার নিজেরই নেয়া উচিত এবং আমাদের কাছ থেকে জাকজমকপূর্ণ বিদায় তার প্রাপ্য।’