‘মানুষ কেন বিয়ে করে, বুঝি না’, মালালার বক্তব্যের প্রতিবাদে উত্তাল পাকিস্তান

38
Social Share

বিয়ে জিনিসটাই অপ্রয়োজনীয়। পরস্পরের পাশে থাকাটাই আসল। বিখ্যাত ব্রিটিশ ফ্যাশন ও লাইফস্টাইল ম্যাগাজিন ভোগ’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়লেন নোবেল শান্তি পুরষ্কারজয়ী পাকিস্তানের মালালা ইউসুফজাই। তাঁর এই বক্তব্যের প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে গোটা পাকিস্তান। মালালার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছে পাকিস্তানের নাগরিকরা।

উল্লেখ্য, মাত্র ১৪ বছর বয়সে তালেবানদের হাতে গুলিবিদ্ধ হন মালালা। এরপর ১৭ বছর বয়েসে সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে নোবেল শান্তি পুরস্কার পান তিনি। নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পর থেকে গোটা বিশ্বে পরিচিত তিনি। ভোগ ম্যাগাজিন জুন সংখ্যায় মালালাকে এবার প্রচ্ছদে স্থান দিয়েছে। এই সংখ্যায় মালালার একটি সাক্ষাৎকারও প্রকাশিত হয়েছে।

সাক্ষাৎকারে ২৩ বছর বয়সী মালালা তাঁর ব্যক্তিজীবন, বিশ্বাস, পড়াশোনা, টুইটারে কর্মকাণ্ড এবং অ্যাপলটিভি প্লাসের সঙ্গে তার নতুন অংশীদারিত্ব নিয়ে কথা বলেন। সাক্ষাৎকারে মালালার কাছে বিয়ে সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয়। জবাবে মামালা বলেন, আমি একটা জিনিস বুঝতে পারি না, কেন সবাই বিয়ে করেন? জীবনসঙ্গীর জন্য বিয়ে করা অপ্রয়োজনীয়। যদি সত্যি আপনার জীবনে কোনও মানুষকে চান, তার জন্য বিয়ের কি প্রয়োজন? দু’জনে পরস্পরের পাশে থাকাটাই যথেষ্ট।

মালালার এই মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় মুহূর্তেই ভাইরাল। পাকিস্তানজুড়ে শুরু হয় তীব্র সমালোচনা। মালালার বিয়ে মন্তব্যের সমালোচনা হয়েছে পাকিস্তানের পার্লামেন্টেও। দেশটির ধর্মীয় রাজনৈতিক দলগুলোও মালালার এই মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন। তারা মালালা এবং তার পরিবারের কাছে এই মন্তব্যের স্পষ্ট ব্যাখ্যা চেয়েছেন।