মহেশপুর সীমান্তে আটক ২১ 

143
Social Share
মাহফুজুর রহমান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত থেকে ২১ অনুপ্রবেশকারীকে আটক করেছে ৫৮ বিজিবি। মঙ্গলবার  (১৮ জানুয়ারি) ভোর ৩টার দিকে ভারতীয় সীমান্তের মাটিলা বিওপির মাটিলা গ্রামের মাঠের মধ্যে থেকে এসব বাংলাদেশী নাগরিককে আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে চারজন পুরুষ, ১২ জন নারী ও পাঁচ শিশু রয়েছে। তাদেরকে অবৈধভাবে ভারত হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করার অপরাধে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন নড়াইলের মাওলী গ্রামের সজীব শেখ, আমেনা খাতুন,  ছয় মাসের শিশু আরোবী, ঈশীতা, গোপালগঞ্জের উজানী গ্রামের দিপংকর সরকার, বেনাপোলের দুর্গাপুর গ্রামের সোহরাব মন্ডল, কেশবপুর উপজেলার পাত্রপাড়া গ্রামের রাকিবুল সরদার, নাজমা বিবি, কলারোয়ার শ্রীপুতিপুর গ্রামের রাবিয়া খাতুন, ঝিকরগাছার বাইনচাঁদপুর গ্রামের পারুল খাতুন, আফশীন, আফরীন, নগুনাথপুরবাকী গ্রামের নাছিমা খাতুন, বাগআঁচড়া গ্রামের জাহিদা বেগম, মোঃ রিহান, লাবনী খাতুন, বাগেরহাটের দাড়িলা গ্রামের তানজীলা বেগম, যশোরের সানতলা গ্রামের বকুল বেগম, মনিরামপুরের আগরআঁটি গ্রামের জাহানারা খাতুন, সালমা খাতুন ও বরগুনার বাইনগুনিয়া গ্রামের সোহাগী  খাতুন। আটককৃতদের বেশির ভাগরই বাড়ি যশোরের বিভিন্ন এলাকায়। এছাড়া সাতক্ষীরা, নড়াইল ও বরগুনার বাসিন্দা রয়েছে। মহেশপুর ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক তসলিম মোঃ তারেক জানান, নিজস্ব গোয়েন্দা মাধ্যমে জানতে পেরে ভারত থেকে বাংলাদেশের প্রবেশের সময় তাদের আটক করা হয়। তাদেরকে অবৈধভাবে ভারত হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করার অপরাধে পাসপোর্ট অধ্যাদেশ ১৯৭৩ এর ১১(১)(গ) ধারায় ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর থানায় মামলা দায়ের করে সোপর্দ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, করোনার এই সময়ে ভারত থেকে অবৈধ পথে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে মানুষের প্রবেশের মাধ্যমে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে। সে জন্য বিজিবি’র নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। দিনে ও রাতে বাড়তি টহল চলছে বলে যোগকরেন। উল্লেখ্য, ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলা জুড়ে পাশ্ববর্তি দেশ ভারতের সাথে বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকা রয়েছে প্রায় ৭০ কিলোমিটার। এর মধ্যে কাটাতারবিহীন এলাকা প্রায় ১১ কিলোমিটার। এই কাটাতারবিহীন এলাকা দিয়েই মানুষ অবৈধ পথে এপার ওপার যাতায়াত করে থাকে।