‘মমতার পুলিশই আমার স্বামীকে খুন করেছে’ অভিযোগ মইদুলের স্ত্রীর

41
Social Share

সোমবার সকালে মৃত্যু হল গত ১১ ফেব্রুয়ারি, নবান্ন অভিযানে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকা বাঁকুড়ার কোতুলপুরের ডিওয়াইএফআই কর্মী মইদুল ইসলাম মিদ্যার। এই খবরে পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে মইদুলের পরিবার। শোকস্তব্ধ পরিবার কিছুতেই পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তির মৃত্যু মেনে নিতে পারছে না।

পেশায় অটোচালক ছিলেন মইদুল। গোপীনাথপুর ডিওয়াইএফআইয়ের ইউনিট সম্পাদক ছিলেন মইদুল। এলাকায় ‘ফরিদ’ নামে পরিচিত ছিলেন তিনি। নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি ছিলেন তিনি। তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত সংগঠনের সতীর্থরা।

ডিওয়াইএফআইয়ের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভয় মুখোপাধ্যায় বলছেন, খুব সিরিয়াসলি রাজনীতি করতেন মইদুল। সংগঠনের প্রতিটি কর্মসূচিতে অংশ নিতেন তিনি।

মইদুলের দুই শিশু কন্যা (একজনের বয়স ১০ বছর ও অন্যজনের ৫ বছর), বিধবা শাশুড়ি এবং স্ত্রী আলেয়া বিবি। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তিকে হারিয়ে তাঁদের ভবিষ্যত এখন অথৈ জলে। আলেয়া বিবির অভিযোগ, মমতার পুলিশই আমার স্বামীকে খুন করেছে।