ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে গাছ নিধনের প্রতিবাদে সমাবেশ ও মানববন্ধন

55
Social Share

কাজল আর্য, স্টাফ রিপোর্টার: মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর স্মৃতি বিজড়িত মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমি সমস্যা এবং গাছ নিধনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ তোলা হয়। বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে বিভিন্ন সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।
মানববন্ধন বক্তব্য রাখেন ভাসানী পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি বুলবুল খান মাহবুব, জেলা সিপিবি’র সভাপতি অধ্যক্ষ আবদুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক ওয়াহেদুজ্জামান মতি, ভাসানী ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক সানু, ইসলামিক বি বি শিশু স্কুলের প্রধান শিক্ষক আফরোজা বেগম, রানী দিনিমনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শামিমা ইসলাম, মওলানা ভাসানী আদর্শ কলেজের অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন, ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় বালক হাই স্কুলের সহকারী শিক্ষক মামুনুর রহমান, মওলানা ভাসানী মুরিদান অনুসারী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ আজাদ, মানবাধিকার কর্মী আবদুল গনি আলরুহি, ভাসানি স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত করিম, ভাসানী অনুসারি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শোভা খানসুর প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকারা উপস্থিত ছিলেন।
বক্তারা বলেন মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাবিপ্রবি) ভিসি ড. মো. আলাউদ্দিন অনিয়মতান্ত্রিকভাবে মওলানা ভাসানীর প্রতিষ্ঠিত ৭টি প্রতিষ্ঠানের ৫১টি গাছ কেটে বিক্রি করেন। যার মূল্য ৪ লাখ ৫ হাজার টাকা। প্রকৃতির সৌন্দর্য নষ্ট করে এসব গাছ কাটা বন্ধের দাবি করছি। যেসব গাছ কাটা হয়েছে সেগুলো বিক্রির টাকা সরকারের কোষাগারে দেওয়ার দাবি করেন তারা। এরপর নতুন করে আর কোন গাছ কেটে ভিসি যেন স্থানীয় পরিবেশ নষ্ট না করে এব্যাপারে সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
এদিকে মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসি ড. মো. আলাউদ্দিন অভিয়োগ অস্বীকার করে দৈনিক জাগরণকে বলেন রাস্তা সম্প্রসারণের জন্য নিয়মমতোই গাছ কাটা হয়েছে। রাস্তার কাজ শেষ হলে দুপাশ দিয়ে আবার গাছ লাগিয়ে দেওয়া হবে।