ভারতের ব্যাপক উত্থান! স্বাধীনতার এই প্রথম অর্ধ ট্রিলিয়ন ডলার বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডারের মালিকে পরিণত হল দেশ

Social Share

কোনো দেশ আর্থিক দিক থেকে কতটা শক্তিশালী এবং ভবিষ্যতে সেদেশের স্বরূপ কেমন হবে তা দেখার সহজ উপায় হল ওই দেশের বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডার। আর্থিক বিশেষজ্ঞরাও মূলত বৈদেশিক মুদ্রা ভান্ডার দেখে আর্থিক গ্রোথের রিপোর্ট পেশ করেন। এখন এই বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডারের বৃদ্ধিতে ভারত যে বিজয় পতাকা উড়িয়েছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।

মাত্র এক সপ্তাহ আগেই চারিদিকে আলোচনা ছড়িয়েছিল যে ভারত শীঘ্রই অর্ধ ট্রিলিয়ন ডলার বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডারের মালিক হবে। আর এখন প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী ভারত সেই রেকর্ড ছুঁয়ে নতুন এলিট গ্রুপে প্রবেশ করেছে।

স্বাধীনতার পর এই প্রথমবার ভারতের বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডার ৫০০ বিলিয়ন ডলারের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলেছে। জানিয়ে দি, বিশ্বের মাত্র কয়েকটি দেশ এই ৫০০ বিলিয়ন ডলারের ঘরে পৌঁছাতে পারে। এখন ভারত এই পরিসংখ্যান ছুঁয়ে ফেলেছে এবং নতুন এলিট গ্রুপে প্রবেশ করেছে।

লক্ষণীয় বিষয় এই যে, করোনার দরুন পুরো বিশ্বের বাজার নিনম্মুখী হয়ে রয়েছে। এমন অবস্থায় ভারতের উত্থান বহুকিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছে। বলা হচ্ছে বিগত দু মাসে ভারতের বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডার তীব্রগতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে। ভারতের অর্থমন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেছেন ভারতের অর্ধ ট্রিলিয়ন ডলার বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডারের মালিক হওয়া একটা ঐতিহাসিক ঘটনা।

ভারত করোনা সঙ্কটকাল থেকে মোটামুটিভাবে বেরিয়ে এলেই সরকার বৈদেশিক মুদ্রাভান্ডারের সামান্য অংশ কাজে লাগিয়ে ইকোনমিকে বুস্ট করতে সক্ষম হবে তা নিয়ে সন্দেহ নেই। ভারতের বৈদেশিক মূদ্রাভান্ডারের গ্রোথ দেখে আমেরিকার ক্রেডিং রেটিং কোম্পানি ফিচ এক চাঞ্চল্যকর দাবি করেছে। ফিচ দাবি করেছে ভারত করোনা সমস্যা থেকে বেরোলেই ভারতের ইকোনমি গ্রোথ ৯.৫ অবধি পৌঁছে যাবে।