ভারতের বিপদে চার ট্রাক ওষুধ সামগ্রী উপহার পাঠাল বাংলাদেশ

54
Social Share

প্রতিবেশী দেশ ভারতে ভয়াবহ করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। অবনতিশীল কভিড পরিস্থিতিতে ভারতের জনগণের জন্য সহায়তা হিসেবে বাংলাদেশের ওষুধ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীর দ্বিতীয় চালান এটি। ভারতের কলকাতায় বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান ভারত সীমান্তের পেট্রাপোলে ভারত সরকারের প্রতিনিধির কাছে ২৬৭২ কার্টুন ৪টি ট্রাকে (২৬৭২ কার্টুন) প্রায় ২০ কোটি টাকা মূল্যের করোনা প্রতিরোধ ইনজেকশন, ক্যাপসুল, হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ ১৮ প্রকারের ওষুধ সামগ্রী হস্তান্তর করেন। এ সময় নয়াদিল্লির রেড ক্রস সোসাইটির কর্মকর্তাসহ উভয় দেশের প্রশাসন ও আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত ৬ মে প্রথম চালানে ১০ হাজার ‘ভায়াল’ রেমডেসিভির ইনজেকশন হস্তান্তর করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশের জনগণের পক্ষ থেকে ভারতের কভিড আক্রান্ত জনগণের জন্য চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে এসব ওষুধ সামগ্রী পররাস্ট্র মন্ত্রণালয় মাধ্যমে ভারতে পাঠানো হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৮ মে) সকালে ট্রাক ৪টি বেনাপোল চেকপোস্টে আসার পর প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সম্পন্ন করে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে ভারতে বাংলাদেশের উপ হাইকমিশনার তৌফিক হাসান ওষুধ সামগ্রী গ্রহণ করেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা আবু তাহের জানান, ৪টি ট্রাকে ২৬৭২ কার্টুন ওষুধ সামগ্রী উপহার হিসেবে পাঠানো হচ্ছে। এসব ওষুধের মূল্য প্রায় ২০ কোটি টাকা। এখানে করোনা প্রতিষেধক ১৮ প্রকারের ওষুধ রয়েছে।

বেনাপোল সিএন্ডএফএজেন্ট রবি ইন্টারন্যাশনালের সত্ত্বাধিকারী রবিউল ইসলাম রবি জানান, কাস্টমস ও বন্দরে কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা সম্পূর্ণ করেই ভারতে এ ওষুধ সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, কভিড বিস্তারের কারণে ভারতে প্রাণহানির ঘটনায় বাংলাদেশ সরকার গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছে। এই সংকটময় মুহূর্তে বাংলাদেশ সহমর্মিতা নিয়ে তার কাছের প্রতিবেশী ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং জীবন রক্ষায় সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতা দিতে বাংলাদেশ প্রস্তুত আছে। ভারতের জনগণের দুর্ভোগ লাঘবে বাংলাদেশের জনগণ প্রার্থনা করছে। প্রয়োজনে বাংলাদেশ ভারতকে আরো সহযোগিতা করতে আগ্রহী।