ভারতের প্রথম পরমাণু অস্ত্র বহনকারী হাইপারসোনিক ক্ষেপণাস্ত্র শৌর্যের সফল উৎক্ষেপণ

Social Share

ভুবনেশ্বর: চিনের সঙ্গে ভারতের ঠান্ডা যুদ্ধ অব্যাহত। সেই আবহেই এবার পরীক্ষামূলকভাবে আণবিক ‘শৌর্য’ ব্যালিস্টিক মিসাইলের উৎক্ষেপণ করল ভারত। শনিবার ওড়িশা উপকূলের ধামরার আবদুল কালাম আইল্যান্ড টেস্ট রেঞ্জ থেকে এটির উৎক্ষেপণ করা হয়। উৎক্ষেপিত এই ক্ষেপণাস্ত্রটি ৮০০ কিলোমিটার দূরের নিশানায় আঘাত হানতে সক্ষম।

শনিবার দুপুর ১২ টা ১০ মিনিট নাগাদ শব্দের চেয়ে ৭.৫ গুণ সর্বোচ্চ গতিতে উড়ে যায় ‘শৌর্য’ ক্ষেপণাস্ত্রটি। ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (DRDO) জানিয়েছে, এটি অত্যাধুনিক কম্পিউটিং প্রযুক্তি ও নিখুঁত নিশানা ভেদ করতে পারে, সঠিক গতিতে উড়ে যেতে পারে, উচ্চ পর্যায়ের নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা ও দিক নির্ণয় করতে পারে।

উল্লেখ্য, এর মাত্র তিন দিন আগেই বালেশ্বরের ইন্টিগ্রেটেড টেস্ট রেঞ্জ থেকে ৪০০ কিলোমিটার পাল্লার ব্রাহমোস সারফেস-টু-সারফেস সুপারসনিক ক্রুজ মিসাইলের সফল পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। আগে রাশিয়া ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে তৈরি এই ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা ছিল ২৯০ কিলোমিটার।

ভারতের ‘স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল ফোর্স’-এ শামিল হবে এই হাইপারসোনিক অর্থাৎ শব্দের চেয়েও দ্রুত ‘শৌর্য’ ব্যালিস্টিক মিসাইল। শত্রুকে আণবিক অস্ত্রভাণ্ডার তথা সম্ভাব্য পারমাণবিক হামলার পালটা জবাব দিতে ‘স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল ফোর্স’ গড়ে তুলেছে ভারত।