ভারতের পর আফগানিস্তানের লুপ্তপ্রায় শিখ আর হিন্দুদের নাগরিকতা দেওয়র উদ্যোগ নিলো আমেরিকার

Social Share

নয়া দিল্লীঃ আফগানিস্তান (Afghanistan) অত্যাচারিত হিন্দু আর শিখ সম্প্রদায়ের পাশে এবার শুধু ভারতই (India) না, আমেরিকাও (America) দাঁড়ালো। হাউস অফ রিপ্রেসেন্টেটিভে কংগ্রেসের জ্যাকি স্পিয়ার এবং আরও ৭ জন নেতা দ্বারা একটি প্রস্তাব পেশ করা হয়েছে, ওনারা আফগানিস্তানে অত্যাচারিত ধার্মিক সম্প্রদায়ের আবারও পুনর্বাসন করতে চাইছেন। গত সপ্তাহে পেশ করা এই প্রস্তাবে বলা হয়েছে যে, শিখ আর হিন্দু আফগানিস্তানে সংখ্যালঘু আর লুপ্তপ্রায় সম্প্রদায় হতে চলেছে। প্রস্তাবে বলা হয়েছে যে, সম্প্রতি বছরগুলোতে শিখ, হিন্দু আর আফগানিস্তানের অন্যায় ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে অত্যাচার বেড়ে গিয়েছে।

প্রস্তাবে এও বলা হয়েছে যে, এই দুই সম্প্রদায়ের সদস্যদের আমেরিকার শরণার্থী প্রবেশ কার্যক্রম অনুযায়ী পুনর্বাসন করা হবে। আফগান সংবাদসংস্থা টোলো নিউজ অনুযায়ী, গত তিন দশকে এই দুই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রায় ৯৯ শতাংশ মানুষ আফগানিস্তান থেকে পলায়ন করেছে। একসময় আফগানিস্তানের প্রাচীন শাসকেরা হিন্দুদের নগন্য করে দিয়েছিল, আর শিখ ৫০০ বছরের ইতিহাস থাকা শিখেদের সংখ্যা একন মাত্র ৬০০ রয়েছে। এই দুই সম্প্রদায়ের এখন মাত্র ৭০০ জনই আফগানিস্তানে আছে। ১৯৭০ এর দশকে ৭ লক্ষ সংখ্যালঘু মানুষ আফগানিস্তানে বসবাস করত।

আফগানিস্তানের কাবুল আর জালালাবাদ শহরে হওয়ার হামলায় এই দুই সম্প্রদায়ের মানুষেরা প্রাণ হারিয়েছেন। ২০১৮ সালে জালালাবাদে একটি হামলা হয়েছিল, সেখানে ১৯ জন শিখ আর হিন্দু প্রাণ হারান। এছাড়াও এই বছরের ২৫ মার্চ কাবুলের গুরুদ্বারাতে হওয়া হামলায় ২৫ জন শিখ ধর্মাবলম্বি মানুষ প্রাণ হারিয়েছিলেন। এই বছরের জুন মাসে আমেরিকার সাংসদের একটি দল ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে আফগানিস্তান থেকে শিখ আর হিন্দুদের আপাতকালিন শরণার্থী সুরক্ষা দেওয়ার আবেদন করেছিল।

তাঁদের মতে, আফগানিস্তানে হিন্দু আর শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ শুধুমাত্র ধর্মের কারণে আইএসআইএস এর চক্ষুশূল হয়ে উঠেছে। ওই টিম ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে ধার্মিক স্বাধীনতা রক্ষা করার আবেদন করে এই ধার্মিক সংখ্যালঘুদের স্বার্থে জরুরী পদক্ষেপ নেওয়ার আবেদন করেছিল।

ভারত সরকার বলেছিল যে, আফগান হিন্দু আর শিখদের ভারতের যাত্রা করার জন্য ভিসা প্রদান করা ছাড়াও তাঁদের ভারতীয় নাগরিকতা দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এছাড়াও বাংলাদেশ, পাকিস্তান আর আফগানিস্তান থেকে আগত ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ভারতের নাগরিকতা দেওয়ার জন্য সরকার নাগরিকতা আইন লাগু করেছে। কিছুদিন আগেই সরকার আফগানিস্তান থেকে হিন্দু আর শিখদের ভারতে শরণার্থী হিসেবে নিয়ে এসেছে এবং তাঁদের দীর্ঘকালীন ভিসা দেওয়া হয়েছে। ভিসা শেষ হলেই তাঁদের ভারতীয় নাগরিকতাও দেওয়া হবে। (IANS)