ভারতের টিকা তৈরির ক্ষমতা সারা বিশ্বের কাছে সেরা সম্পদ: জাতিসংঘের মহাসচিব

53
Social Share

মারণ করোনাভাইরাস এখন মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। যার ফলে বড়সড় বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে সারা বিশ্ব। বর্তমানে করোনার টিকা নিয়ে গোটা বিশ্বে ভারতের জয়জয়কার। পাকিস্তান বাদে প্রতিবেশী দেশগুলিকে করোনার টিকা জোগান দিচ্ছে ভারত। এবার করোনার টিকা সরবরাহ নিয়ে ভারতের পঞ্চমুখ হলেন রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস (United Nations Secretary-General Antonio Guterres)।

তিনি বলেন, আমি জানি ভারত বিপুল পরিমাণে টিকার ডোজ তৈরি করেছে। সেই কারণে ভারতীয় সংস্থাগুলির সঙ্গে আমরা নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিনের চাহিদা মেটানোর সমস্ত প্রয়োজনীয় উপকরণ বিজ্ঞানীদের কাছে রয়েছে। অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, ভারতের টিকা তৈরির ক্ষমতা এখন সারা বিশ্বের কাছে সেরা সম্পদ। আশা করছি, এই সম্পদের যথাযথ গুরুত্ব গোটা দুনিয়া বুঝবে।

উল্লেখ্য, করোনা নিরাময়ে দুটি টিকা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা উদ্ভাবিত কোভিশিল্ড, যেটির উৎপাদন করছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট এবং ভারতে তৈরি কোভ্যাক্সিন ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে ভারত সরকার। দেশজুড়ে চলছে গণটিকাকরণ। অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, মানুষের জীবন বাঁচানোর ওষুধগুলি সারা বিশ্বে সমানভাবে বিতরণ করা উচিত। সারা বিশ্বে যে সমস্ত সংস্থাগুলি করোনার কার্যকরী টিকা তৈরি করছে তাঁদের অবিলম্বে তা বিতরণের লাইসেন্স দেওয়া উচিত।

প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই প্রায় ৫৫ লাখ করোনা টিকা প্রতিবেশী দেশগুলিকে উপহার হিসেবে পাঠিয়েছে ভারত। ওমান এবং প্রশান্ত মহাসাগরের বেশ কিছু দ্বীপেও ভ্যাকসিন পাঠাচ্ছে ভারত। আফ্রিকায় প্রায় ১ কোটি টিকার ডোজ পাঠাচ্ছে ভারত। এছাড়া রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধি ও কর্মীদের জন্য প্রায় ১০ লাখ টিকার ডোজ পাঠাতে পারে ভারত। সূত্র: কোলকাতা ট্রিবিউন