ভাঙ্গা য় ইউপি নির্বাচন – ঘারুয়ায় ভোট প্রচারে মাঠে মুনসুর

127
ভাঙ্গা
Social Share

ফরিদপুর সংবাদদাতা : আসন্ন ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন আগামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ নির্বাচনকে ঘিরে উপজেলার চায়ের দোকান থেকে শুরু করে মাঠে ময়দানে খেলার মাঠে শুধু চলছে নির্বাচনী আলোচনা। কে হচ্ছেন নিজেদের ইউপি পরিষদের আগামী দিনের জনপ্রতিনিধি বা আমাদের চেয়ারম্যান।

সরজমিনে এ প্রসঙ্গে ভাঙ্গা  উপজেলার ঘারুয়া ইউনিয়নের সাধারণ ভোটারদের সাথে কথা হলে তারা জানান, সমাগত ইউপি নির্বাচনে বেশ কয়েকজন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। তাদের মধ্যে সবার কাছে গ্রহণযোগ্যতার দিক থেকে মুনসুর আহমেদ মুন্সী এর (আনারস প্রতীক) প্রতি সবার নজর রয়েছে একজন সৎ ও সজ্জন বেক্তি হিসেবে।

তাদের ভাষ্যমতে, ঘনীভূত শীতের হাওয়ায় ঘারুয়ার ইউপি পরিষদ নির্বাচনী ভোট ব্যাটিং প্রচারে মুনসুর দিন দিন এগিয়ে চলেছে। সেই ধারাবাহিকতায় এলাকার বৃদ্ধ যুবা ও সকল পেশার জনগণ সাথে রয়েছে মুনসুর আহমেদ মুন্সী । তিনি নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে গোটা এলাকায় সাধারণ ভোটারদের দ্বারে দ্বারে একাধীকবার পৌঁছে ভোট প্রচারে অনেকের দৃষ্টি কেড়েছে।

এছাড়াও মুনসুর আহমেদ মুন্সী একদিকে বয়সে নবীন অন্যদিকে উন্নয়নের রাজনীতির ধারাবাহিকতায় গোটা ইউনিয়নের শত শত যুবক তার হয়ে কাজ করছেন। এছাড়া নবীন-প্রবীণদের বুদ্ধির সমন্বয়ে চলছে মুনসুর আহমেদ মুন্সীর আনারস মার্কার নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা।

মুনসুর আহমেদ মুন্সীর অসংখ্য কর্মী-সমর্থকের ভাষ্য গত কয়েকটি বছর ধরে ফরিদপুর-৪ আসনের জনপ্রিয় সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপির সাথে থেকে বিভিন্ন সময়ে মুনসুর আহমেদ মুন্সী ঘারুয়ার উন্নয়নমূলক কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখার পাশাপাশি ব্যক্তিগত অর্থ দিয়ে সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। যার ফল্প্রসু হিসেবে মুনসুর আহমেদ মুন্সীর আজকের যে ব্যাপক প্রচার প্রচারণার জোয়ার বইছে ২৮ নভেম্বর প্রত্যাশিত বিজয়ের ফল তাদের ঘরে উঠে আসবে বলে মনে করছেন তার কর্মী ও সমর্থকরা।

এ প্রসঙ্গে ভিনিউজ বিডি ডটকমের প্রতিবেদককের সাথে একান্ত সাক্ষাৎকারে চেয়ারম্যান প্রার্থী মুনসুর আহমেদ মুন্সী বলেন, ছোট বেলা থেকে আমাদের পরিবারের বড়দের কাজ থেকে শিখে ছিলাম মানুষের পাশে থেকে কিভাবে দাড়াতে হয়। পারিবারিক শিক্ষা থেকেই অর্জন আর আমাদের প্রিয় নেতা সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরীর সাথে থেকে রাজনৈতিক অভিজ্ঞতার আলোকে এলাকার সাধারণ মানুষের জন্য কিভাবে উন্নয়নে পাশে থাকতে হয় সেই অভিজ্ঞতা অর্জন করতে শিখেছি।

সমাগত ইউপি নির্বাচনে আমি একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী (আনারস প্রতীক) হয়ে দিবারাত্রি ভোটারদের কাছে গিয়ে তাদের সুখদুঃখের কথা শুনছি। ইনশআল্লা আমি বিজয় লাভ করলে বিগত দিনের মত আমাই আমার এলাকার উন্নয়নে আগামী দিনেও এলাকার সাধারণ মানুষের সাথে থেকে একইভাবে তাদের জন্য কাজ করতে চাই।

আমার ইচ্ছে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের উন্নয়নের রাজনীতির ধারায় প্রিয় নেতা সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের অন্যতম প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন ভাইর হাত দিয়ে ঘারুয়া ইউনিয়নকে একটি ডিজিটাল ইউনিয়নে রূপান্তরিত করার।