ভাঙ্গায় স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার সংবাদ সম্মেলন

ফরিদপুর প্রতিনিধি:

108
ভাঙ্গায়
Social Share

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোহসিন উদ্দিন ফকিরকে জড়িয়ে শহিদুল ইসলাম কর্তৃক মাতৃস্বাস্থ্য ভাউচার স্কীম( ডি.এস.এফ) এর টাকা বন্টন নিয়ে  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ,নামসর্বস্ব অনলাইন মিডিয়ায় মিথ্যা,বানোয়াট ও অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

গতকাল রোববার সন্ধ্যায় উপজেলা সেমিনার কক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মোহসিন উদ্দিন বলেন, কথিত সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম তাকেসহ এলাকার সম্মানিত ব্যাক্তি, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাাদের বিরুদ্বে মানহানিকর প্রচারনা, লোকমুখে কুটসা রটনাসহ নানামুখি কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে।

তিনি এজন্য শহিদুলসহ কতিপয় সহযোগীর বিরুদ্বে মামলা,জিডি করেছেন। তারপরও সে ক্ষান্ত হয়নি। ডাঃ মোহসিন উদ্দিন ফকির বলেন, তাকে জড়িয়ে প্রকল্পের টাকা আত্নসাৎ দেখিয়ে সে কোটি টাকার দূর্নীতির কথা বলেছে। বাস্তবে এ পরিমান টাকা প্রকল্পে বরাদ্বই নেই। তাছাড়া মাতৃ স্বাস্থ্য ভাউচা স্কীমের টাকা ব্যাংকের সুবিধাভোগীদের বিকাশ অথবা ডাচবাংলা একাউন্টের মাধ্যমে জমা হয়। এখান থেকে টাকা উত্তোলনের কোন সুযোগ নেই।

অথচ তাকে জড়িয়ে সে অপপ্রচার চালিয়েই যাচ্ছে। তিনি এর তীব্র নিন্দা জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মইনুদ্দিন সেতু, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মুন্সী রুহুল আসলাম, মাদ্রাসা অধ্যক্ষ মাওলানা আবু ইউসুফ মৃধা, মোঃ ইব্রাহিম মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

……………………………………………………………………………………………………

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোহসিন উদ্দিন ফকিরকে জড়িয়ে শহিদুল ইসলাম কর্তৃক মাতৃস্বাস্থ্য ভাউচার স্কীম( ডি.এস.এফ) এর টাকা বন্টন নিয়ে  সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ,নামসর্বস্ব অনলাইন মিডিয়ায় মিথ্যা,বানোয়াট ও অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

গতকাল রোববার সন্ধ্যায় উপজেলা সেমিনার কক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ মোহসিন উদ্দিন বলেন, কথিত সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম তাকেসহ এলাকার সম্মানিত ব্যাক্তি, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাাদের বিরুদ্বে মানহানিকর প্রচারনা, লোকমুখে কুটসা রটনাসহ নানামুখি কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে।

তিনি এজন্য শহিদুলসহ কতিপয় সহযোগীর বিরুদ্বে মামলা,জিডি করেছেন। তারপরও সে ক্ষান্ত হয়নি। ডাঃ মোহসিন উদ্দিন ফকির বলেন, তাকে জড়িয়ে প্রকল্পের টাকা আত্নসাৎ দেখিয়ে সে কোটি টাকার দূর্নীতির কথা বলেছে। বাস্তবে এ পরিমান টাকা প্রকল্পে বরাদ্বই নেই। তাছাড়া মাতৃ স্বাস্থ্য ভাউচা স্কীমের টাকা ব্যাংকের সুবিধাভোগীদের বিকাশ অথবা ডাচবাংলা একাউন্টের মাধ্যমে জমা হয়। এখান থেকে টাকা উত্তোলনের কোন সুযোগ নেই।

অথচ তাকে জড়িয়ে সে অপপ্রচার চালিয়েই যাচ্ছে। তিনি এর তীব্র নিন্দা জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মইনুদ্দিন সেতু, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মুন্সী রুহুল আসলাম, মাদ্রাসা অধ্যক্ষ মাওলানা আবু ইউসুফ মৃধা, মোঃ ইব্রাহিম মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।