বড় ঝটকা খেলো চীন! বেজিংয়ের সাথে সমস্ত সম্পর্ক ভেঙে ব্রিটেনে যাচ্ছে টিকটক

Social Share

নয়া দিল্লীঃ জনপ্রিয়তার শিখরে থাকা সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ টিকটক (TikTok ) চীনের (China) সাথে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করতে লন্ডনে (London) নিজেদের হেড কোয়ার্টার বানাতে পারে। আর এই নিয়ে ব্রিটেন সরকারের সাথে কথাবার্তা চালাচ্ছে টিকটক কর্তৃপক্ষ। রয়টার্সের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, চীনের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করতে টিকটক নতুন পদক্ষেপ নিতে চলেছে। উল্লেখ্য, চীনের সাথে সম্পর্ক থাকার কারণে ভারত টিকটক সমেত ৫৯ টি চাইনিজ অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল।

ভারতের এই পদক্ষেপের পর আমেরিকা ভারতের পাশে দাঁড়িয়ে বলে, ভারতের এই পদক্ষেপ একদম সঠিক। এমনকি এবার আমেরিকাও টিকটকে ব্যান করার দিকে অগ্রসর হয়েছে। আমেরিকা যদি টিকটকের উপরে ব্যান করে দেয়, তাহলে বিশ্বের অনেক দেশেই ধীরে ধীরে ব্যান হয়ে যাবে এই চাইনিজ সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ। সুত্র অনুযায়ী, টিকটক ব্রিটেনের লন্ডন সমেত অনেক শহরকেই বেছে নিয়েছে তাঁদের হেডকোয়ার্টার বানানোর জন্য। যদিও এখনো পর্যন্ত শহরের নাম নিয়ে অন্তিম সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

এখনো পর্যন্ত স্পষ্ট না যে, লন্ডন ছাড়া তাঁরা অন্য কোন শহরের নাম নিয়ে বিচার করছে। কিন্তু, টিকটক এই বছরে আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়ায় নতুন করে ভর্তি নিচ্ছে ব্যাপক স্তরে। নতুন আধিকারিক নিয়োগের মধ্যে ওয়াল্ট ডিজনির প্রাক্তন কো-এক্সিকিউটিভ কেভিন মেয়রের নামও আছে। মেয়রকে টিকটকের চীফ এক্সিকিউটিভ বানানো হয়েছে। চীনের সাথে যুক্ত থাকার কারণে টিকটক আমেরিকাতেও চরম সমস্যার সন্মুখিন হচ্ছে।

আমেরিকার আশঙ্কা হল, চীন টিকটকের মাধ্যমে ইউজার্সদের গোপন তথ্য চুরি করছে। যদিও টিকটক এই অভিযোগ আগেই খারিজ করে দিয়েছিল। সুত্র অনুযায়ী, টিকটক বিগত কয়েক সপ্তাহ ধরে আমেরিকায় হেডকোয়ার্টার বানানোরও চিন্তা করছে। যদিও লন্ডনে হেডকোয়ার্টার বানানো নিয়ে বেশি আগ্রহী তাঁরা।