পাকিস্তানে সেনাবাহিনী কর্তৃক ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতনের প্রতিবাদে ঢাকায় পথসভা অনুষ্ঠিত

26
Social Share

নিজস্ব প্রতিনিধি: আজ শুক্রবার সকাল ১১ টায় রাধানীর গুলশান-২ চত্ত্বরে বাংলাদেশ সোস‌্যাল এ্যাক্টিভিস্ট ফোরাম এর উদ্যোগে পাকিস্তানের বেলুচ, গিলগিত ও সিন্ধুতে প্রদেশে পাকিস্তানী সেনাবাহিনী কর্তৃক ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদে পথসভা ও র‌্যালীর আয়োজন করা হয়।

এই প্রতিবাদসভা ও র‌্যালীতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সোস‌্যাল এ্যাক্টিভিস্ট ফোরাম এর প্রধান সমন্বয়ক মুফতী মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী।সভায় বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এসময় (বিবিএসএস) অনলাইন ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন চেয়ারম্যান তৌফিক বলেন, ‘আজাদ-কাশ্মীরের মানুষের মানবাধিকার রক্ষা করতে হবে। বিশেষ করে নারী ও শিশুদের যারা নির্যাতন, বৈষম্য ও সহিংসতার শিকার।’

এসময় তিনি পাকিস্তান সরকারের সমালোচনা করে বলেন, ‘পাকিস্তান এ অঞ্চলে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছে ও সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে।’ তিনি বিবিএসএস-এর হয়ে বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক ফোরামের প্রতি আহ্বান জানান পাকিস্তানের মানবাধিকার লঙ্ঘণের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে।

এদিকে, একই দিনে বাংলাদেশ সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্ট ফোরাম (বিএসএএফ) রাজধানীর গুলশানে পাকিস্তান হাইকমিশনের কাছে পথসভা ও র‌্যালি করে। এসময় পাকিস্তানের বেলুচ, গিলগিট-বালতিস্তান ও সিন্ধুসহ বিভিন্ন প্রদেশে পাকিস্তান সেনাবাহিনী কর্তৃক ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর নৃশংস নির্যাতন-নিপীড়নসহ গণহত্যা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদ জানানো হয়।

এসময় বক্তারা বলেন, আল-জাজিরার ভিত্তিহীন বিভ্রান্তিকর মিথ্যা প্রতিবেদন প্রকাশ করে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার যে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। তার মধ্যে পাকিস্তানের পৃষ্ঠপোষকতা ও গভীর চক্রান্ত আছে বলে আমরা মনে করি।

সংগঠনের প্রধান সমন্বয়ক মুফতী মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ী’র সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ মানবিকতার দায়বোধ থেকে পাকিস্তান সরকার ও সেনাবাহিনী কর্তৃক যেসকল প্রদেশে এখনো গণহত্যাসহ নারী-শিশুকে নৃশংস নির্যাতন-নিপীড়ন ও  মানবতাবিরোধীযজ্ঞ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের অবাধ লীলা চলছে তা বন্ধ করার জন্য পথ সভা থেকে জোর দাবী করছি।’