‘বিয়ে আর হবে না’, সলমনকে ভবিষ্যদ্বাণী জ্যোতিষীর

Social Share

খাতায় কলমে বয়স ৫৪। অথচ ভাইজান এখনও ব্যাচেলার। ইউলিয়া ভন্তুরের সঙ্গে তাঁর প্রেম নিয়ে বলিপাড়া উত্তাল হলেও কবে তিনি বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন তা নিয়ে ভক্তদের কৌতূহলের শেষ নেই। কিন্তু এ কী! মুম্বইয়ে নাম করা গনৎকার মুখের উপরেই সলমনকে জানিয়ে দিলেন, আগামী দিনেও নাকি তাঁর বিয়ের কোনও সম্ভাবনা নেই। পাল্টা কী প্রতিক্রিয়া দিলেন ভাইজান?

গতকাল অর্থাৎ শনিবার ছিল ‘বিগ বস সিজন ১৪’-এর গ্র্যান্ড ওপেনিং। আর সেই রিয়ালিটি শো-তেই অতিথি হয়ে এসেছিলেন মুম্বইয়ের নাম করা গণৎকার পণ্ডিত জনার্দন। লোকের বিশ্বাস পণ্ডিত নাকি মুখ দেখে বলে দিতে পারেন মানুষের ভবিষ্যৎ। ইংরাজিতে যাকে বলে ‘ফেস রিডার’। শো-র মঞ্চে একে একে প্রতিযোগীদের সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করছিলেন তিনি। সে সময়েই হঠাৎ এই সিজনে ইতিমধ্যেই জনপ্রিয়তা অর্জন করা প্রতিযোগী নিক্কি তাম্বোলির মুখ দেখে জনার্দন বলেন, নিকি বাইরে থেকে সহজ সরল দেখতে হলেও ভিতরে ভিতরে খুবই চালাক। সে সময়েই নিজের ভবিষ্যৎ জেনে নিতে মরিয়া হয়ে ওঠেন ভাইজানও। সরাসরি জনার্দনকে প্রশ্ন করেন, বিয়ে কি হবে তাঁর? ভাইজানকে হতাশ করে তৎক্ষণাৎ ওই জ্যোতিষীর উত্তর, “আপাতত তো কোনও সম্ভাবনাই দেখছি না”।

ছাড়বার পাত্র নয় ভাইজানও। তিনিও পাল্টা মনে করিয়ে দিলেন ছয় বছর আগে এই জনার্দনই নাকি ভাইজানকে বলেছিলেন, তাঁর ভাগ্যে বিয়ে রয়েছে। হঠাৎ এই উলটপুরাণ কেন? গণৎকারের দিকে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে মরিয়া সলমন আবারও জিজ্ঞাসা করেন, “সামনে কি কোনও যোগই নেই?” কিন্তু গণৎকার তাঁর বলা কথায় অনড়। ঘাড় নেড়ে তিনি সাফ জানিয়ে দেন “কোনও আশাই নেই”। যদিও এর খানিক পরেই হাসিতে ফেটে পড়েন সলমন। বলেন, “বাহ! খুব ভাল। বিয়ের চান্সই নেই”। সত্যিই কী তাই? ব্যাচেলার তকমা কি কোনওদিনই ঘুচবে না তাঁর গা থেকে? রসিক এক ভক্তের প্রশ্ন, “ইউলিয়া? তাঁর কী হবে তবে?”