বিক্ষোভ-সমাবেশ নিষিদ্ধই থাকছে কাশ্মীরে

জম্মু ও কাশ্মীরে এখন কোনও বিক্ষোভ-সমাবেশ অনুমতি দেওয়া হবে না। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিজি দিলবাগ সিংহ এ কথা  জানিয়েছেন।

জম্মু ও কাশ্মীরে শ্রীনগরের প্রতাপ সিংহ পার্কে সম্প্রতি বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে  গিয়ে গ্রেফতার হন ফারুক আবদুল্লাহর বোন সুরাইয়া ও মেয়ে সাফিয়া-সহ ১৩ জন নারী। পরে মুচলেকা দিয়ে মুক্তি পান তাঁরা।

এ নিয়ে প্রশ্নের জবাবে দিলবাগ বলেন,  কাশ্মীরের পরিস্থিতি আগে আরও স্থিতিশীল হওয়া প্রয়োজন। তার আগে কোনও বিক্ষোভের অনুমতি দেওয়া হবে না।

তাঁর দাবি, সে দিনের বিক্ষোভে নারীরা যেসব প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে এসেছিলেন তার মধ্যে কয়েকটিতে এমন বার্তা ছিল যার জেরে আইন-শৃঙ্খলার সমস্যা হতে পারে। তাই পদক্ষেপ নিতে হয়েছে।

দিলবাগের বক্তব্য,  উসকানি কেবল কথায় হয় না। প্ল্যাকার্ডে বার্তা দিয়েও উসকানি দেওয়া যেতে পারে।
তাঁর কথায়, এখন কোনও বিক্ষোভেরই অনুমতি দেওয়া হবে না। পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলে তখন অনুমতির কথা ভেবে দেখা যেতে পারে।

সরকারি সূত্রের দাবি, কাশ্মীরে এখনও ১৪৪ ধারা জারি রয়েছে। ফলে কোনও জমায়েতেরই অনুমতি দেওয়ার প্রশ্ন নেই।

কিন্তু নানা শিবির থেকে প্রশ্ন উঠছে, খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহই জানিয়েছেন, কাশ্মীরে এখন কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। পরিস্থিতি স্বাভাবিক। তাহলে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ-জমায়েতের অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না কেন?

জবাবে সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, অমিত শাহ ৬টি থানা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি থাকার কথা বলেছেন। তিনি জানিয়েছেন উসকানি বরদাস্ত করা হবে না। ন্যাশনাল কনফারেন্স এবং কংগ্রেস উসকানি দিচ্ছে বলেও দাবি করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

সূত্র : আনন্দবাজার