বাবার কবর জিয়ারত করে মনোনয়নপত্র কিনলেন নাসিমপুত্র জয়

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ক্লিন ইমেজের নেতা তানভীর শাকিল জয়।
Social Share

আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সাবেক সমন্বয়ক ও সাবেক মন্ত্রী প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের পুত্র তানভীর শাকিল জয় সিরাজগঞ্জ-১ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র ক্রয় করেছেন। আজ বুধবার বেলা ১১টায় বনানী কবরস্থানে বাবা মোহাম্মদ নাসিমের কবর জিয়ারত করে ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে গিয়ে এই আবেদনপত্র ক্রয় করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ক্লিন ইমেজের নেতা তানভীর শাকিল জয়। মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে এই আসনটি শূন্য হয়। ইতোমধ্যেই প্রকৌশলী জয়কে সিরাজগঞ্জ-১ আসনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে সমর্থন দিয়ে রেজুলেশন পাস করেছে কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ।

মোহাম্মদ নাসিমের পিতা শহীদ ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। জাতীয় চার নেতার অন্যতম এম মনসুর আলী, যিনি পঁচাত্তরের ৩ নভেম্বর কারাগারে অন্তরীণ থাকা অবস্থায় নির্মমভাবে খুন হন। আর গত ১৩ জুন না ফেরার দেশে চলে গেছেন মোহাম্মদ নাসিম। সিরাজগঞ্জ-১ আসনে মোহাম্মদ নাসিম ১৯৮৬, ১৯৯১, ১৯৯৬, ২০০১, ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হন। শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে সরকার গঠন করার পর ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান মোহাম্মদ নাসিম। পরের বছর মার্চে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বও তাকে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মোহাম্মদ নাসিম এক সঙ্গে দুই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন ১৯৯৯ সালের ১০ মার্চ পর্যন্ত। পরে মন্ত্রিসভায় রদবদলে তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করার পর শেখ হাসিনা তাকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রীর দায়িত্ব দেন। সফলতার সাথে মোহাম্মদ নাসিম এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বও পালন করেন।

মন্ত্রী-এমপি-দলের নেতা হিসেবে মোহাম্মদ নাসিম অনেক যুগান্তকারী উদ্যোগ নিয়েছেন, অনেক ভাল কাজ করেছেন। তিনি দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে নানা প্রতিকূলতার মধ্যে সময় পার করেছেন কিন্তু আদর্শে সব সময় হিমালয়ের মতো অটল। মাঝখানে ওয়ান-ইলেভেন সরকারের দেওয়া মামলার কারণে ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি মোহাম্মদ নাসিম। ওই নির্বাচনে এই আসন থেকে বিজয়ী হন তার ছেলে তানভীর শাকিল জয়। রাজনৈতিক পরিবারের জন্ম তানভীর শাকিল জয় সফলতার সাথে সংসদ সদস্যের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। রাজনীতিতে তাদের পরিবারের ভূমিকা নিয়ে ‘সংসদে তিন প্রজন্ম’ নামের একটি বইয়ের সম্পাদনাও করেছেন মোহাম্মদ নাসিম। সেখানে ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী, তার সন্তান মোহাম্মদ নাসিম এবং তার ছেলে তানভীর শাকিল জয়ের ভূমিকা নিয়ে বইটি লেখা হয়েছে। গত ১৩ জুন মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে দলের হাইকমান্ড বাবার অবর্তমানে ছেলে তানভীর শাকিল জয়কেই এই আসনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে অনেকটাই নিশ্চিত করেছেন বলে জানা গেছে। মোহাম্মদ নাসিম দীর্ঘদিন মন্ত্রী-এমপি থাকলেও সন্তানদের কখনো ক্ষমতার অপব্যবহার করতে দেখা যায়নি।