বান্দরবান এ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মহাপিন্ড দান অনুষ্ঠান

156
বান্দরবান
Social Share

বান্দরবান এ যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয়েছে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের মহাপিন্ড দান অনুষ্ঠান।
শুক্রবার সকাল ৮টায়  মহাপিন্ড দান অনুষ্ঠান উপলক্ষে বান্দরবান খ্যং ওয়া ক্যং রাজগুরু বৌদ্ধ বিহার থেকে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে বান্দরবানের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় তিন শতাধিক বৌদ্ধ ভিক্ষু শহরের বিভিন্ন জায়গা প্রদক্ষিণ করে পিন্ডদান গ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের পি-দান করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভিন তিবরীজি, পুলিশ সুপার জেরিন আখতার সহ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষেরা।
পি-দান অনুষ্ঠানে সকলে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের শ্রদ্ধা জানিয়ে নগদ টাকা, চাল, ফল, মিষ্টি, মোম ও আগরবাতিসহ নানা রকম উপকরণ দান করেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা ।
প্রসঙ্গত, প্রতিবছরই মাসব্যাপী বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠান শেষে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের উদ্দেশ্যে এই মহা পি-দান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়, আর এই পি-দান অনুুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আগামী দিনের সুখ শান্তি প্রত্যাশা করে বৌদ্ধ ধর্মালম্বী নর-নারীরা। যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে বান্দরবানে উদযাপিত হয়েছে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের মহাপিন্ড দান অনুষ্ঠান।
শুক্রবার সকাল ৮টায়  মহাপিন্ড দান অনুষ্ঠান উপলক্ষে বান্দরবান খ্যং ওয়া ক্যং রাজগুরু বৌদ্ধ বিহার থেকে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে বান্দরবানের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় তিন শতাধিক বৌদ্ধ ভিক্ষু শহরের বিভিন্ন জায়গা প্রদক্ষিণ করে পিন্ডদান গ্রহণ করেন।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের পি-দান করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভিন তিবরীজি, পুলিশ সুপার জেরিন আখতার সহ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষেরা।
পি-দান অনুষ্ঠানে সকলে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের শ্রদ্ধা জানিয়ে নগদ টাকা, চাল, ফল, মিষ্টি, মোম ও আগরবাতিসহ নানা রকম উপকরণ দান করেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা
প্রসঙ্গত, প্রতিবছরই মাসব্যাপী বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠান শেষে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের উদ্দেশ্যে এই মহা পি-দান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়, আর এই পি-দান অনুুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আগামী দিনের সুখ শান্তি প্রত্যাশা করে বৌদ্ধ ধর্মালম্বী নর-নারীরা। প্রসঙ্গত, প্রতিবছরই মাসব্যাপী বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠান শেষে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের উদ্দেশ্যে এই মহা পি-দান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়, আর এই পি-দান অনুুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে আগামী দিনের সুখ শান্তি প্রত্যাশা করে বৌদ্ধ ধর্মালম্বী নর-নারীরা।