বাগরেহাটরে মোল্লাহাট বাবার হাতে প্রাণ গলে শশিু কন্যার

62
Social Share

মাসুম হাওলাদার বাগরেহাট প্রতিনিধি:
বাগরেহাটরে মোল্লাহাটে বাবার হাতে আড়াই বছর বয়সী এক শশিু কন্যার মৃত্যু হয়ছেে বলে অভযিোগ উঠছে। সোমবার রাতে মোল্লাহাট উপজলোর উদয়পুর ইউনয়িনরে দবৈকান্দী গ্রামে এই ঘটনা ঘট। ঘটনার পর পালয়িে গছেে শশিুটরি পতিা।শশিুটরি নাম রাইসা আক্তার। তাঁর পতিা হুমায়ুন সরদার ওরফে মহউিদ্দনি উদয়পুর দবৈকান্দী গ্রামরে প্রয়াত আব্দুর রহমানরে ছলে।স্থানীয়রা জানান, হুমায়ুন সরদার সনো সদস্য। তাদরে দুটি কন্য সন্তান। রাইসা ছাড়াও স্নগ্ধিা আক্তার নামে তাদরে পাঁচ বছর বয়সী একটি ময়েে আছ।মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত র্কমর্কতা (ওস) কাজী গোলাম কবরি বলনে, পারবিারকি বরিোধরে জরেে রাত সাড়ে ৬ টার দকিে হুমায়ুন সরদার তার আড়াই বছর বয়সী ময়েে রাইসাকে আছাড় দনে। এতে ঘটনাস্থলইে শশিুটি মারা গছে। শশিুটরি পতিা হুমায়ুন সরদারকে গ্রপ্তোররে চষ্টো চলছ।
পরর্বতী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণরে জন্য মরদহে উদ্ধার করে ময়না তদন্তে জন্য পাঠানো হয়ছে।

মোল্লাহাট উপজলো স্বাস্থ্য ও পরবিার পরকিল্পনা র্কমর্কতা ডাঃ বল্পিব কান্তি বশ্বিাস বা জানান, সন্ধ্যা ৬.৫০ মনিটিরে সময় রাইসা নাম করে ১টি বাচ্চাকে র্ইমাজন্সেি বভিাগে নয়িে আসে শুনছেি তার পতিা বাচ্চাটি আছাড় দয়িে এবং আছাড়রে ফলে মাথার হাড় ভঙ্গেে গছেে তার বাম কান দয়িে রক্ত বরে হচ্ছলি এবং বাম চোখ দয়িে রক্ত বরে হচ্ছলি। বাচ্চাটকিে আনার পরে আমরা পরীক্ষা-নরিীক্ষা করে দখেলাম বাচ্চাটি এখানে আসার আগে মৃত্যুবরন করছে। ময়না তদন্ত হওয়ার পর রপ পলেে আমরা আরও নশ্চিতি হতে পারবো যে সে আঘাত জনতি কারণে মারা গছেে কি না।