বাংলাদেশে এসে একযোগে অবসরের হুমকি শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের!

83
Social Share

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ সফরে এসেছে শ্রীলঙ্কা দল। মাত্র কয়দিন আগেই টাইগাররাও শ্রীলঙ্কা থেকে টেস্ট সিরিজ খেলে এসেছে। এই সময়ের মাঝেই বদলে গেছে অনেক কিছু। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) খেলোয়াড়দের বেতন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেইসঙ্গে পারফরম্যান্সভিত্তিক চুক্তির পদ্ধতিতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এসএলসি। এতে নিশ্চিতভাবেই ক্রিকেটারদের আয় কমে যাবে। যে কারণে ক্রিকেটাররা এবার বোর্ডের প্রতি চরম সিদ্ধান্ত গ্রহণের হুমকি দিয়েছে!

বেশ কিছুদিন ধরেই লঙ্কান বোর্ডে আর্থিক সমস্যা চলছে। এই মুহূর্তে শ্রীলঙ্কা টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে অষ্টম, ওয়ানডেতে নবম। র‍্যাংকিংয়ে পিছিয়ে যাওয়ায় তাদের ব্র্যান্ডভ্যালু কমে গেছে। যার ফলে সম্প্রচার সত্ত্ব এবং স্পনসরশিপ থেকে বোর্ডের আয়ও কমেছে। এখন আয় বৃদ্ধির স্বার্থে লঙ্কান বোর্ড চাইছে বেতন কমিয়ে দিয়ে ক্রিকেটারদের ওপর চাপ বাড়াতে, যাতে তারা ভালো পারফর্মেন্স করে। যেসব ক্রিকেটার ভালো পারফর্ম করবে, সম্প্রচার সত্ত্ব এবং স্পনসরশিপ থেকে প্রাপ্ত আয়ের একটা অংশ তাদের বোনাস দেওয়া হবে।

এখানে ক্রিকেটারদের বক্তব্য হলো, চুক্তির খুঁটিনাটি তাদেরকে জানাতে হবে। চুক্তিতে বিভিন্ন বিষয়ে পয়েন্টের ভিত্তিতে খেলোয়াড়দের বিভিন্ন গ্রেডে ভাগ করার কথা বলা আছে। কিন্তু পয়েন্ট কীভাবে নির্ধারণ করা হবে- সেটাও পরিস্কার করার দাবি ক্রিকেটারদের। শ্রীলঙ্কান মিডিয়া ‘দ্য সানডে টাইমস’ জানিয়েছে, বোর্ড যদি সবকিছু পরিস্কার না করে তাহলে একযোগে অবসর গ্রহণের হুমকি দিয়েছেন ক্রিকেটাররা। বোর্ডের সঙ্গে দর কষাকষি করতে ইতোমধ্যেই ক্রিকেটারদের পক্ষ থেকে একজন আইনজীবী নিয়োগ করা হয়েছে।

নতুন চুক্তির আইনে ক্রিকেটারদের সর্বশেষ দুই বছরে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফরম্যান্স, ফিটনেস, শৃঙ্খলা, দলে অবদান, পেশাদারত্ব এবং নেতৃত্ব- বিবেচনা করে ক্রিকেটারদের চারটি গ্রেডে ভাগ করা হয়েছে। ক্রিকেটারদের পারফর্মেন্স দেখে তাদের গ্রেড ঠিক করবেন ডিরেক্টর অব ক্রিকেট, প্রধান কোচ, ফিজিও আর নির্বাচকমণ্ডলী। এ বিশয়ে ক্রিকেটারদের আইনজীবী নিশান সিডনি প্রেমাথিরত্নে বলেছেন, ‘চুক্তির গ্রেড ভাগের ক্ষেত্রে পয়েন্ট কীভাবে ঠিক করা হচ্ছে, সেটা জানার অধিকার ক্রিকেটারদের আছে। স্বচ্ছতা এখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাতে ক্রিকেটাররা বুঝতে পারবেন তাদের মূল্যায়ন কীভাবে হচ্ছে এবং কোন দুর্বলতা নিয়ে তাদের কাজ করতে হবে।