বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবেন না কোহলি

নিজ মাঠে বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলছেন না ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। মূলতঃ গত মার্চে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ থেকেই বিরতিহীনভাবে খেলে আসছেন তিনি। ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট বেশ কিছু দিন ধরেই কোহলির নেতৃত্বাধীন ভারতীয় দলের খেলোয়াড়দের কাজের চাপ কমানোর বিষয়টিতে প্রাধান্য দিয়ে আসছে এবং বেশ কিছু সিনিয়র খেলোয়াড়কে বিশ্রাম দেয়ার নীতি গ্রহণ করেছে। আগামী ২৪ অক্টোবর বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল ঘোষণা করার কথা রয়েছে

বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে কোহলিকে বিশ্রাম দেয়ার সিদ্ধান্ত ইতোমধ্যেই নেয়া হয়েছে বলে বিসিসিআইয়ের একটি সূত্র নিশ্চিত করেছে। গত জানুয়ারিতে নিউজিল্যান্ড সফরে শেষ দুই ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে সর্বশেষ বিশ্রাম নিয়েছেন কোহলি। এই সিরিজে সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির খেলা নিয়ে এখনও সংশয় আছে। ধোনির ব্যাপারে  নির্বাচকদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন নব-নির্বাচিত বোর্ড সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী। গত জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের পর থেকেই খেলার বাইরে আছেন ধোনি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সূত্রটি জানায়, ‘হ্যাঁ, বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ তিনি খেলবেন না। কেননা তিনি বিরতিহীনভাবে খেলার মধ্যে আছেন এবং তার একটা বিশ্রাম দরকার। তিনি এক নাগারে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ, আইপিএল, বিশ্বকাপ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর এবং এখন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ খেলছেন। যারা তিন ফরম্যাটেই দলের হয়ে খেলে থাকে তাদের কাজের চাপ কমানোটা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। খেলোয়াড়দের সতেজ রাখা এবং সব সময় তাদের কাছ থেকে সেরাটা পাওয়া নিশ্চিত করার লক্ষ্যেই এটা করা হয়ে থাকে।’

তবে বাংলাদেশের বিপেক্ষ দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে কোহলি খেলবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। কোহলি জানিয়েছেন, লংগার ভার্সন রয়েছে তার হুদয় জুড়ে এবং ভারতকে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধনী আসরের শিরোপা এনে দিতে কোনো ঘাটতি রাখতে চাননা। ওই সিরিজ দিয়েই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে যাত্রা শুরু করবে বাংলাদেশ।

-সূত্র : বাসস