বঙ্গবন্ধুকে জানার এবং চর্চার প্রাসঙ্গিকতা চিরকালীন : ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী

Social Share

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী বলেছেন, মুজিব চর্চার প্রাসঙ্গিকতা শুধু তাঁর জন্ম শতবার্ষিকী কেন্দ্রীক নয় বরং এর প্রাসঙ্গিকতা চিরকালীন।
মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার সন্ধ্যায় ‘জন্ম শতবার্ষিকীতে মুজিব চর্চা’ বিষয়ক এক অনলাইন আলোচনা সভার প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, এমপি। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন অনুষ্ঠানের সভাপতি জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মনসুর আলম খান। অনুষ্ঠানের শুরুতে মুজিববর্ষের থিমসং “তুমি বাংলার ধ্রুবতারা, তুমি হৃদয়ের বাতিঘর” বাজানো হয়।
বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন জিজ্ঞাসার জবাব দেন প্রধান আলোচক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।
নাসের চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে যদি আমরা অবহিত না হই, তবে আমরা বাংলাদেশকে জানতে পারব না। তাই বাংলাদেশকে জানতে বা বুঝতে হলে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানাতে হবে। কারণ আগামীতে বাংলাদেশকে সঠিক পথে পরিচালনার দায়িত্ব তাদেরই।” আর বঙ্গবন্ধুকে জানা এবং তাঁকে নিয়ে আলোচনা শুধু তাঁর জন্ম শতবার্ষিকীতে আমরা সীমাবদ্ধ রাখতে চাই না। তাঁকে জানার এবং চর্চার প্রাসঙ্গিকতা চিরকালীন এবং এটি অব্যাহত রাখতে হবে” বলেন তিনি।
জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ‘মুজিব বর্ষে শতঘন্টা মুজিব চর্চা’ কর্মসূচি অনুযায়ী অনলাইনে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। গত ৩০ আগস্ট এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।
কর্মসূচিতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে মোট ১০০ ঘন্টা মুজিব চর্চার লক্ষ্য নিয়ে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী অনলাইনে নিয়মিত আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে।
অনলাইন আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে মেহেরপুরের পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলি, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), উপজেলা নির্বাহী অফিসাররা, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, শিক্ষা বিশেষজ্ঞ, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, স্কুল-কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।