প্রবাসী বাংলাদেশিদের মুজিববর্ষ পালনের নির্দেশনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

Social Share

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন গতকাল বিদেশস্থ বাংলাদেশের মিশনপ্রধানদের কাছে লেখা এক পত্রে স্বাগতিক দেশের সরকার, সুশীলসমাজ এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণে বিদেশে মুজিববর্ষ পালন করার নির্দেশনা দেন।

ড. মোমেন বলেন, মুজিববর্ষ পালন আমাদের জন্য শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতা নয়, বরং এটি জাতি হিসেবে আমাদের পরিচয়, বাঙালি জাতি এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একক ভূমিকার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধাজ্ঞাপন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুজিববর্ষকে সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশের অভাবনীয় সাফল্য আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তুলে ধরার একটি বিরাট সুযোগ হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বিশ্বের সকল দেশের সরকার, ব্যবসায়ী মহল, সুশীলসমাজ এবং জনগণের কাছে বাংলাদেশের সাফল্যসমূহ তুলে ধরার মাধ্যমে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখতে আরো সক্রিয় ভূমিকা রাখতে বাংলাদেশের বৈদেশিক মিশনগুলোকে নির্দেশনা দেন।

ড. মোমেন উল্লেখ করেন, বর্তমান বছরে আমাদের প্রবৃদ্ধি ৮.১৫ শতাংশ এবং অচিরেই বাংলাদেশের গড় প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশের কোঠা স্পর্শ করবে বলে আমরা নিশ্চিত। গত একদশকে বাংলাদেশের জিডিপি ১৮৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। মাথাপিছু আয় বেড়েছে সাড়ে তিনগুণ এবং বর্তমানে তা প্রায় দুই হাজার ডলার। বর্তমানে আমাদের জিডিপি ৩০২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা ২০০৯ সালে ছিল মাত্র ১০২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। রপ্তানি আয় প্রায় তিনগুণ বৃদ্ধি পেয়ে আজ ৪০.৫৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের উর্ধ্বে। গত দেড় দশকে বিনিয়োগ-জিডিপির শতকরা হার ২৬ শতাংশ থেকে বেড়ে ৩১.৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। একই সময়ে বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ ৫ গুণ বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমানে প্রায় ৭১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমতুল্য।