প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সব মানুষকে নিয়েই ভাবেন : শিক্ষামন্ত্রী

47
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
Social Share

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের সব মানুষকে নিয়েই ভাবেন। যত দ্রুত সম্ভব আমরা যেন শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে পারি সেই নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, টিকা দেওয়ার পরও আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেলে চলতে হবে।

সোমবার সকালে রাজধানীর মতিঝিলের আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ঢাকা শহরে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এসময় এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

এই কার্যক্রমে প্রথমে টিকা নিয়েছেন রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাহসান হোসেন। তাহসানের পর ২য় এবং প্রথম মেয়ে শিক্ষার্থী হিসেবে কভিড টিকা গ্রহণ করেন একই শ্রেণির শিক্ষার্থী মাহজাবিন তমা। এসময় তারা দু’জনেই ফাইজারের টিকা গ্রহণ করেন।
টিকা নেওয়ার পর তাহসান হোসেন বলেন, এতদিন মনের ভেতর করোনা নিয়ে যে ভয়টা ছিল, তা এখন আর সেভাবে কাজ করবে না। ভয়হীনভাবে পড়াশোনা করতে পারবো।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, টিকা দেওয়ার পরও আমাদের স্বাস্থ্যবিধি মেলে চলতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সব মানুষকে নিয়েই ভাবেন। যত দ্রুত সম্ভব আমরা যেন শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে পারি সেই নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

সোমবার সকালে রাজধানীর মতিঝিলের আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ঢাকা শহরে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এসময় এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

এই কার্যক্রমে প্রথমে টিকা নিয়েছেন রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাহসান হোসেন। তাহসানের পর ২য় এবং প্রথম মেয়ে শিক্ষার্থী হিসেবে কভিড টিকা গ্রহণ করেন একই শ্রেণির শিক্ষার্থী মাহজাবিন তমা। এসময় তারা দু’জনেই ফাইজারের টিকা গ্রহণ করেন।
টিকা নেওয়ার পর তাহসান হোসেন বলেন, এতদিন মনের ভেতর করোনা নিয়ে যে ভয়টা ছিল, তা এখন আর সেভাবে কাজ করবে না। ভয়হীনভাবে পড়াশোনা করতে পারবো।

এই কার্যক্রমে প্রথমে টিকা নিয়েছেন রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী তাহসান হোসেন। তাহসানের পর ২য় এবং প্রথম মেয়ে শিক্ষার্থী হিসেবে কভিড টিকা গ্রহণ করেন একই শ্রেণির শিক্ষার্থী মাহজাবিন তমা। এসময় তারা দু’জনেই ফাইজারের টিকা গ্রহণ করেন।
টিকা নেওয়ার পর তাহসান হোসেন বলেন, এতদিন মনের ভেতর করোনা নিয়ে যে ভয়টা ছিল, তা এখন আর সেভাবে কাজ করবে না। ভয়হীনভাবে পড়াশোনা করতে পারবো।