পিরোজপুর এ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বীর নিবাস নির্মাণ কাজ শুরু

125
পিরোজপুর
Social Share

পিরোজপুর জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য মুজিবর্ষে বীর নিবাস নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। জেলার মঠবাড়িয়ার ১২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার জন্য ১ কোটি ৬১ লক্ষ ২৩ হাজার ৪১২ টাকা বরাদ্দের ১২টি বীর নিবাস নির্মিত হচ্ছে।

জেলার ৭ উপজেলায় ৮৪টি বীর নিবাস নির্মাণের জন্য পিরোজপুর জেলার ১১ কোটি ২৮ লক্ষ ৬৩ হাজার ৯১২ টাকা বরাদ্দ এসেছে। প্রতিটি উপজেলায় ১২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে প্রথম বরাদ্দ থেকে বীর নিবাস নির্মাণ করে দেয়া হচ্ছে। অন্যান্য উপজেলায় দরপত্র আহ্বান করে ঠিকাদারকে কার্যাদেশ দেয়া হলেও মঠবাড়িয়ায় ঠিকাদার ইতোমধ্যেই নির্মাণ কাজ শুরু করেছে।

৮৪ জন মুক্তিযোদ্ধা এ প্রথম বরাদ্দের ভবন পাচ্ছে। জেলার তালিকাভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্য থেকে চলতি অর্থ বছরে ৬ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধাকে এ বীর নিবাস নির্মাণ করে দেয়া হবে। প্রতিটি ভবনের আকার হবে ১৭৬৩ বর্গফুট। ২টি বেড রুম, ১টি ডাইনিং রুম, ১টি কিচেন রুম ও ২টি বাথরুম থাকছে প্রতিটি বীর নিবাসে। জেলার ৭ উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা প্রকৌশলী, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, উপজেলা সমাজসেবা অফিসারসহ ৭ সদস্যের ১টি কমিটি এ ভবন নির্মাণের যাবতীয় কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকবেন। ওটিএম অথবা এলটিএম পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বানের জন্য মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা ছিল এবং সে অনুযায়ী দরপত্র আহ্বান করা হয়।

পিরোজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ বশির আহমেদ যিনি বর্তমানে মঠবাড়িয়া উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন তিনি জানান মঠবাড়িয়ায় নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে এবং তিনি ২৬ অক্টোবর এ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছেন। তিনি আরো জানান পিরোজপুর সদর উপজেলায়  ইতোমধ্যেই ঠিকাদারকে কার্যাদেশ দেয়া হয়েছে। মঠবাড়িয়ায় বীর নিবাস নির্মাণ করে দেয়ার জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের যে তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে সে তালিকায় বহেরা তলার আব্দুল লতিফ হাওলাদার, জানখালির মকবুল হোসেন, ছোট মাছুয়ার সোয়েবুর রহমান গোলদার, ফুলঝুড়ির গাউস মিয়া, ফুল মিয়া গাজী ও এজাহার আলী, ধানীসাফার আব্দুল জব্বার, আব্দুর রাজ্জাক মিয়া, তেতুল বাড়িয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আব্দুল হাই মাতুব্বরের স্ত্রী সুরমা বেগম, দক্ষিণ বন্দরের বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত অশোক চক্রবর্তীর স্ত্রী সীমা চক্রবর্তী ও ছোট মাছুয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আব্দুল আজিজ ফরাজীর স্ত্রী মোসাঃ ফজিলা বেগম রয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বশির আহমেদ বলেন মুজিববর্ষে দেশের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আধুনিকমানের এ বীর নিবাস উপহার দিচ্ছেন।

এদিকে পিরোজপুর সদর উপজেলার বীর নিবাস নির্মাণের জন্য চূড়ান্ত তালিকায় নাম থাকা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক মাস্টার বলেন আমার পরিবার জরাজীর্ণ ঘরের পরিবর্তে নতুন ভবনে বসবাসের সুযোগ পাচ্ছে এ এক পরম পাওয়া। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা আমার নেই।