পাপন যাচ্ছেন দিল্লি ; পদত্যাগের খবরটি গুজব

গত কয়েকদিন ধরে দেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের অব্যাহত প্রতিবাদ এবং ক্যাসিনোর ভিডিও প্রকাশের পর গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছিল যে, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নাকি পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন। কয়েকটি ভুঁইফোঁড় অনলাইন পোর্টাল এমন সংবাদও প্রকাশ করে ফেলেছে। কিন্তু তারা খবরের সত্যতা যাচাই করেননি। প্রচুর অসচেতন মানুষ যাচাই না করেই চোখ বুঁজে ওইসব বিভ্রান্তিকর খবর বিশ্বাসও করেছেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছেন। তবে বিসিবির সূত্রে জানা গেছে, এটা স্রেফ গুজবই। পাপনের পদত্যাগের কোনো সংবাদ নেই।

মূলতঃ সাকিব আল হাসান আর বিসিবি সভাপতির মাঝে সৃষ্ট দুরত্বের বিষয়টি সাম্প্রতিক সময়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে স্পষ্ট হয়ে যায়। সাকিবের নেতৃত্বে ক্রিকেটারদের আন্দোলন আর ধর্মঘটের ডাক দেয়ার মুহূর্ত থেকে দেশের ক্রিকেট অনুরাগি, ভক্ত ও সমর্থকের বড় অংশ বিসিবি ও বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসানের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। এরপর সাকিবের বিজ্ঞাপন চুক্তি নিয়েও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন পাপন। উক্ত দুটি ঘটনার পর আইসিসিসি তথ্য গোপনের অভিযোগে সাকিবকে নিষিদ্ধ করলে সমর্থকেরা ধরে নেন যে, পাপনই আইসিসিকে দিয়ে এই কাজ করিয়েছেন।

ভক্ত-সমর্থকরা বরাবরই অন্ধভাবে খেলোয়াড়দের পক্ষ নেয়। এবারো তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। আসল ঘটনা না বুঝেই পাপন বিরোধীতা উঠেছে তুঙ্গে। এই আগুনে ঘি ঢেলে দিয়েছে পাপনের ক্যাসিনোতে গিয়ে জুয়া খেলার একটি ভিডিও। সব মিলিয়ে বিসিবি প্রধানের ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও নানা কুরুচিপূর্ণ কথা-বার্তা বলা হচ্ছে। গতকাল রাত থেকেই শুরু হয় পদত্যাগের গুঞ্জন। তবে বিসিবির পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে যে, আপাতত পাপনের পদত্যাগের কোনো সম্ভাবনা নেই। কাল থেকে শুরু হতে চলা বাংলাদেশ-ভারত টি-টোয়েন্টি সিরিজ দেখতে তিনি আজ দিল্লি যাচ্ছেন। তার সঙ্গী হচ্ছেন আকরাম খান এবং মিনহাজুল আবেদীন।