পাকিস্তান সফর নিয়ে যা বললেন পাপন

Social Share

পাকিস্তানে আপাতত টেস্ট খেলতে রাজি ছিল না বাংলাদেশ। অথচ সেখানে দুটি টেস্টের পাশাপাশি তিনটি টি-টোয়েন্টি ও একটি ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ দল। সব বিতর্ক পেছনে ফেলে অবশেষে পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে বাংলাদেশ দল।

প্রথম দফায় ২৪, ২৫ ও ২৭ জানুয়ারি লাহোরে হবে তিনটি টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটে অংশ নিতে আগামী ২২ জানুয়ারি দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ দল। এছাড়াও নতুন সূচি অনুযায়ী টেস্টের পাশপাশি একটি ওয়ানডেও খেলতে হবে। কিন্তু এফটিপি (ফিউচার ট্যুর প্ল্যান) অনুযায়ী, কোনো ওয়ানডে ম্যাচ খেলার কথা ছিল না। তাহলে ওয়ানডে এলো কোথা থেকে? এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

দুবাইয়ে আইসিসি সভার ফাঁকে মঙ্গলবার পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানির সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন নাজমুল হাসান। আইসিসি চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহরের উপস্থিতিতে দুই বোর্ড প্রধানের আলোচনায় বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর চূড়ান্ত হয়েছে। তারপর তিনি আজ বুধবার সকালে সভা থেকে দেশে ফিরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বলেন, সরকার থেকে যেই বিষয়টা বলা আছে, আমরা যে রকম আগে থেকে বলেছি, ওইরকমই হয়েছে। এখানটায় লিখেছে যে প্রথমে টি-টোয়েন্টি খেলে আসবে। তারপরে অবস্থা বিবেচনা করে পরবর্তী সময়ে গিয়ে টেস্টগুলো খেলে আসবে। আমরা এখনো সেই ধারাতেই আছি।

ফিউচার ট্যুর প্ল্যানের (এফটিপি) বাইরে ওয়ানডে যুক্ত করার কারণ জানাতে গিয়ে নাজমুল হাসান বলেছেন, তিনবারে একটা সিরিজ আয়োজন করা অনেক ব্যয়বহুল। তারা তাতেও রাজি। পাকিস্তানে গিয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে খেলার আগে একটা প্রস্তুতি ম্যাচ দরকার। আমাদের কাছে মনে হয়েছে টি-টোয়েন্টির চেয়ে ওয়ানডে হলে হয়তো অনুশীলনটা ভালো হবে। টি-টোয়েন্টির থেকে ওয়ানডের ওভারও বেশি। অনুশীলনের বেশি সুযোগ পাওয়া যাবে।