পাকিস্তানে গুরুদ্বারা দখল করল কট্টরপন্থী মৌলবি, বলল এই দেশ শুধু মুসলিমদের জন্য

Social Share

নয়া দিল্লীঃ পাকিস্তানের (Pakistan) ইসলামাবাদের কৃষ্ণ মন্দিরের ভিত্তি স্থাপন বন্ধ করে দেওয়ার পর এবার পাকিস্তানের লাহোর শহরে এক কট্টরপন্থী মৌলবি শিখদের ধর্মস্থল গুরুদ্বারার মন্দির কবজা করলেন। উনি এই নিয়ে শিখদের হুমকি দিয়ে বলেন, পাকিস্তান ইসলামিক দেশ, আর এখানে শুধু মুসলিমরাই থাকতে পারবে।

লাহোরে মুসলিম পয়গম্বর হজরত শাহ কাকু চিশতির দরগাহর স্বয়ংসেবী মৌলবি সোহেল বাট দাওয়াত-এ-ইসলামি এর সাথে যুক্ত। উনি স্থানীয় মানুষদের সাথে মিলে গুরুদ্বারা শহীদ ভাই তারু সিংয়ের (Bhai Taru Singh) জমিতে কবজা করে নেন। উনি দাবি করেন যে, গুরুদ্বারা আর তাঁর আশেপাশের চার থেকে কানাল জমি হজরত শাহ কাকু চিশতি দরগাহ আর শাহিদগঞ্জ মসজিদের অংশ।

উনি গুরুদ্বারা সাহিবে গত বছর শ্রী নিসাল সাহিবে শিখদের ধর্মীয় পতাকা উত্তোলনকারী গোপাল চাওয়লাকে একটি ভিডিও জারি করে হুমকি দেন। উনি বলেন, পাকিস্তান একটি ইসলামিক দেশ, ১৯৪৭ সালে লক্ষ লক্ষ মুসলিম এই দেশের জন্য প্রাণ হারিয়েছিলেন। এরজন্য এই দেশে এখন শিখেদের কোন কথা চলবে না। শোনা যাচ্ছে যে, মৌলবি সোহেল এই কাজ ভূমি মাফিয়াদের ইশারায় করেছে আর এদের মধ্যে একজন আইএসআই আধিকারিকও আছে।

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, এই গুরুদ্বারা ভাই তারু সিং শাহিদ স্থলে বানানো হয়েছে, সেখানে ১৭২৬ সালে মুগল কালের সময় ভাইসরয় জাকারিয়া খান ইসলাম গ্রহণ করার পর ভাই তারু সিংয়ের শিরচ্ছেদ করেছিল। অনেক বছর পর ভাই তারু সিংয়ের স্মরণে স্থানীয়রা এই গুরুদ্বারা বানিয়েছিল।