পাকিস্তানে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রগুলোতে নারীদের অংশগ্রহণ কমছে

38
Social Share

পাকিস্তানে অর্থনৈতিক ক্ষেত্রগুলোতে নারীদের অংশগ্রহণ ক্রমশ কমছে। সম্প্রতি ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) প্রকাশিত এক রিপোর্টে এ তথ্য উঠে এসেছে। সেখানে দেখা যায়, লিঙ্গ সমতা সূচকে ১৫৬টি দেশের মধ্যে পাকিস্তানের অবস্থান ১৫৩তম। এ খবর প্রকাশ করেছে দ্য ন্যাশন।

বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, লিঙ্গ সমতা সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার ৮টি দেশের মধ্যে পাকিস্তানের অবস্থান ৭ম। তাদের পেছনে রয়েছে কেবল আফগানিস্তান। যারা কিনা দীর্ঘ দুই দশক ধরে চলমান যুদ্ধের কারণে বিধ্বস্ত। এমনকি পাকিস্তানে ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালে লিঙ্গ ব্যবধান আরও শূন্য দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে।

ডব্লিউইএফের প্রতিবেদন অনুসারে, লিঙ্গ সমতার দিক দিয়ে পাকিস্তান বিশ্বের মধ্যে অন্যতম খারাপ দেশ। সেখানে নারী ও পুরুষের মধ্যকার মজুরির পার্থক্য বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৫ দশমিক ৬ শতাংশ। এর চেয়ে খারাপ অবস্থায় আছে কেবল ইরাক, ইয়েমেন ও আফগানিস্তান।

এ ছাড়া ডব্লিউইএফের লিঙ্গ সমতা সূচকে নারীদের অর্থনৈতিক অংশগ্রহণ ও সুযোগের দিক দিয়ে পাকিস্তানের অবস্থান ১৫২তম, শিক্ষাক্ষেত্রে ১৪৪তম, স্বাস্থ্য এবং বেঁচে থাকার দিক দিয়ে ১৫৪তম এবং রাজনৈতিক অংশগ্রহণে ৯৮তম। মোটকথা, সবমিলিয়ে এ তালিকায় দেশটির অবস্থান নিম্নস্তরে।

যাইহোক, এ কথা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ যে মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই প্রায় সকল ক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ কমেছে। তবে পাকিস্তানে এ হার সবচেয়ে বেশি। ডব্লিউইএফের প্রতিবেদন অনুসারে, সেখানে চাকরি হারানোর দিক দিয়ে পুরুষের তুলনায় নারীদের হার বেশি। এ ছাড়া স্কুল বন্ধ থাকায় শিশুদের লালনপালনের দিকেই নারীরা ঝুঁকে পরেছে বেশি।