পাকিস্তানের কাছে করোনা মোকাবিলার কৌশল শেখা উচিত : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Social Share

বিশ্বের বাকি দেশগুলির তুলনায় করোনা প্রতিরোধে অনেকটাই সক্ষম হয়েছে পাকিস্তান। এবার ইমরান খানের সরকারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। করোনাকে কীভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়, তা পাকিস্তানকে দেখে প্রত্যেক দেশের শেখা উচিত বলে পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার।

করোনার ঊর্ধগতিতে লাগাম পরিয়েছে পাকিস্তান। প্রথমদিকে হু হু করে সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও এখন ইমরান খানের দেশে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে সংক্রমণ। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পাকিস্তানে করোনা সংক্রমণের হার অনেকটাই কমেছে। কমেছে দৈনিক মৃত্যুও।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শনিবার পর্যন্ত পাকিস্তানে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৩ লাখের কিছু বেশি। করোনায় এখনও পর্যন্ত দেশে ৬ হাজার ৩৭৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

জনসংখ্যার হিসেবে করোনার হামলার এই পরিসংখ্যান পাকিস্তানের ক্ষেত্রে অনেকটাই সন্তোষজনক বলে মনে করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। শুরুর দিকে পাকিস্তানে লাফিয়ে বাড়ছিল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা নিয়ে ঘরেবাইরে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে ইমরান খানের প্রশাসন।

তবে পাকিস্তানের সীমিত স্বাস্থ্য পরিকাঠামো ব্যবস্থা দিয়েই ভয়াল করোনার মোকাবিলায় কোনও কমতি রাখেনি প্রশাসন। স্বাস্থ্যকর্মীরা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে কাজ করেছেন। তাতেই এসেছে সাফল্য। রুখে দেওয়া গেছে করোনার বিদ্যুৎ গতি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তার দাবি, পাকিস্তানে পোলিও টিকা দেওয়ায় দক্ষ স্বাস্থ্যকর্মীরা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেছেন। বাড়ি বাড়ি ঘুরেছেন তাঁরা। স্বাস্থ্যকর্মীদের নজরদারি, কনট্র্যাক্ট ট্রেসিংয়ের ফল মিলেছে। আর করোনা কীভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা যায় তা পাকিস্তানকে দেখে বিশ্বের অন্য দেশগুলির শেখা উচিত বলে মনে করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অধিকর্তা।