পাকিস্তানি ক্রিকেট বোর্ডের দাবি মেনে নিল ভারতীয় বোর্ড

33
Social Share

বিশ্বকাপ খেলতে আসার জন্য ক্রিকেটারদের ভিসা যাতে দ্রুত নিশ্চিত করা হয়, সেজন্য বিসিসিআই’র কাছে লিখিত আশ্বাস চেয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সৌরভ গাঙ্গুলির ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আগামী এক মাসের মধ্যে সমস্যার সমাধান করা হবে। কর ছাড় নিয়েও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে আইসিসি–কে।

অক্টোবর–নভেম্বরে ভারতে হবে টি–২০ বিশ্বকাপ। তার আগে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি চেয়েছিলেন পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের দ্রুত ভিসা দেওয়ার ব্যাপারটা নিশ্চিত করা হোক। বিসিসিআই সেই দাবি মেনে এপ্রিলের মধ্যে লিখিত আশ্বাস দেবে বলে জানা গেছে।

দীর্ঘদিন ধরেই দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বন্ধ। দুই প্রতিবেশী দেশ ক্রিকেট মাঠে এখন মুখোমুখি হয় কেবল আইসিসি–র প্রতিযোগিতাতেই। কিন্তু সেখানেও সম্প্রতি দু’দেশের ঝামেলা সামনে এসেছে। পাকিস্তানে ২০২০ এশিয়া কাপ হওয়ার কথা ছিল। যদিও কোভিডের কারণে তা পিছিয়ে গিয়েছে এবং চলতি বছর শ্রীলঙ্কায় সেই প্রতিযোগিতা হবে। কিন্তু তার আগে পাকিস্তানে খেলতে যাবে না বলে বেঁকে বসেছিল ভারত। ২০২২–এর এশিয়া কাপ পাকিস্তানে হওয়ার কথা। সেই প্রতিযোগিতায় ভারত অংশগ্রহণ করবে কি না, তা এখনও জানা যায়নি। ভারত এবং পাকিস্তান শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল বছর দেড়েক আগে বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে। বৃষ্টিবিঘ্নিত সেই ম্যাচে ভারত ডাকওয়ার্থ–লুইস নিয়মে ৮৯ রানে হারিয়ে দেয় পাকিস্তানকে। ১৪০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন রোহিত শর্মা। ৭৭ করেছিলেন বিরাট কোহলি।

টি–২০ বিশ্বকাপে শেষবার দু’দেশ মুখোমুখি হয়েছিল ১৯ মার্চ ২০১৬ সালে, কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে। সেই ম্যাচ জিতেছিল ভারত।

উল্লেখ্য, ৫০ ওভার হোক বা ২০ ওভার, কোনও বিশ্বকাপেই এখনও পর্যন্ত ভারতকে হারাতে পারেনি পাকিস্তান।

পাশাপাশি, এতদিন কর ছাড় নিয়ে আইসিসি’র সঙ্গেও দড়ি টানাটানি চলছিল বিসিসিআই’র। টি–২০ বিশ্বকাপ ছাড়াও যাতে ২০২৩ সালের ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ আয়োজন করতে কর ছাড় দেওয়া হয়, তার নিশ্চয়তা চেয়েছিল আইসিসি। সেটিও দ্রুত সমাধান করে দেবে বলে জানিয়েছে বিসিসিআই।

করোনার কারণে টি–২০ বিশ্বকাপে জৈব সুরক্ষা বলয়ে ক্রিকেটারদের থাকতে হতে পারে। তাই দলের সদস্য সংখ্যা বাড়িয়ে ২৩ থেকে ৩০ করা হয়েছে।