পশুপ্রেমীদের জয়, নাগাল্যান্ডে নিষিদ্ধ হল কুকুরের মাংস

Social Share

কোহিমা: কুকুরের মাংস কেনাবেচা বা খাওয়া নিষিদ্ধ ঘোষণা করল নাগাল্যান্ড সরকার। সম্প্রতি ইন্টারনেটে নাগাল্যান্ডের বাজারে কুকুর বিক্রির ছবি ভাইরাল হওয়ার পর নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। এরপরেই সরকারের তরফে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

বহুদিনের রীতি ছিল নাগাল্যান্ডে কুকুরের মাংস খাওয়া। বরাবরই কুকুরের মাংস বিক্রি নিয়ে পশুপ্রেমীর সরব হয়েছিলেন। কিন্তু কিছুতেই কোনও কাজ হচ্ছিল না। স্থানীয় মানুষরা কুকুরের মাংস বিক্রি ও খাবার হিসাবে গ্রহণ পুরনো রীতি বলে দাবি করতেন। কিন্তু এবার নাগাল্যান্ড সরকার কড়া পদক্ষেপ নিল।

এর আগে গত মার্চেই নাগাল্যান্ডের প্রতিবেশী রাজ্য মিজোরামে কুকুরের মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। এবার নাগাল্যান্ডও সেই পথেই হাঁটলো। শুক্রবার নাগাল্যান্ডের প্রধান সচিব টেমজেন টয় টুইটে জানান, ব্যবসায়িক স্বার্থে কুকুর কেনাবেচা, বাজারে কুকুরের মাংস বিক্রি এবং কাঁচা ও রান্না করা কুকুরের মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নাগাল্যান্ড প্রশাসন। রাজ্য মন্ত্রিসভার এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ডিমাপুরের বাজারে কুকুর বিক্রির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। যা নিয়ে তুমুল হইচই শুরু হয়। কবি, সাংবাদিক তথা রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ প্রীতিশ নন্দী নাগাল্যান্ডে কুকুরের মাংস বিক্রি এবং খাওয়ার বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দেন।

প্রসঙ্গত, নাগাল্যান্ডের পশুবাজারে কুকুর মেরে ঝুলিয়ে রাখা হতো। যা অত্যন্ত অমানবিক ও নৃশংস। কুকুরের মাংস বিক্রি এবং খাওয়ার বিরুদ্ধে একাধিক পশুপ্রেমী সংগঠন বারবার নাগাল্যান্ড সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছিল। অবশেষে সেই দাবি মেনে নিয়ে কুকুরের মাংস বিক্রি এবং খাওয়ার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করল নাগাল্যান্ড সরকার।