পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ মজাহারুল হক প্রধান

21
Social Share

বিশেষ প্রতিনিধি: পঞ্চগড় জেলার পঞ্চগড় সদর, তেঁতুলিয়া, আটোয়ারী উপজেলা নিয়ে গঠিত পঞ্চগড়-১ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নির্বাচিত সংসদ সদস্য জনাব মজাহারুল হক প্রধান ১ জানুয়ারি ১৯৫৩ সালে পঞ্চগড় জেলার পঞ্চগড় সরদ উপজেলার বুড়িপাড়া দ্বারিকামারী গ্রামে জন্মগ্রহন করেন।তাঁর পিতার নাম মরহুম মমতাজ উদ্দিন প্রধান এবং মাতা মরহুমা মহছেনা খাতুন। পিতা একজন বিশিষ্ট ভূমি মালিক ছিলেন।সেই সূত্র ধরে লেখাপড়ার পাশাপাশি তিনিও বাবার ব্যবসা দেখাশুনা করতেন। তিনি তেঁতুলিয়া হতে এসএসসি পাশ করেন। জনাব মজাহার রংপুর কারমাইকেল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ হতে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে ডিগ্রিতে পড়াশুনা করেছেন।

রাজনৈতিক জীবন:
ছাত্রজীনে তিনি ছাত্রলীগের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি তেঁতুলিয়া ছাত্রলীগের সংগঠক ও রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। নবম শ্রেণিতে পড়ার সময়ই তিনি জাতীয় গণআন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে তিনি অংশগ্রহণ করেছেন। বর্তমানে তিনি পঞ্চগড় জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সাবেক স্পিকার ব্যারিষ্টার জমির উদ্দিন সরকারকে শতকরা ২০% ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে মজাহারুল হক প্রধান প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর তিনি নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য মনোনীত হন।
২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পঞ্চগড়-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মজাহারুল হক প্রধান নৌকা প্রতীক নিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো এক লাখ ৭৫ হাজার ৩৮৮ ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী ব্যারিস্টার মুহম্মদ নওশাদ জমির সানি ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছিলন এক লাখ ৩২ হাজার ৫৩৯ ভোট।অথাৎ ৪২ হাজার ৮৪৯ ভোটের ব্যবধানে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন মজাহারুল হক প্রধান।

মো: মাজাহরুল হক প্রধান সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর বাংলাবান্ধা বন্দরের মাধ্যমে ভারত হতে পণ্য বাংলাদেশে আমদানির পথ সুগম করার ক্ষেত্রে তিনি বিশেষ ভূমিকা পালন করেন। দেনপুর-পঞ্চগড় বাইপাস রোড নির্মাণ, দিনাজপুর তেতুঁলিয়া ব্রডগেজ রেল লাইন স্থাপন, পঞ্চগড় মহিলা টেকনিক্যাল কলেজ নির্মাণ, পঞ্চগড়ে ভারত বাংলাদেশের জন্য উন্মুক্ত বাজার নির্মাণ প্রভৃতি কর্মকাণ্ডে তাঁর বিশেষ অবদান রয়েছে।

পারিবারিক জীবন:
তাঁর সহধর্মীনী মিসেস সিনুয়ারা বেগম প্রধান। এ পরিবারের তিন ছেলে। বড় ছেলে এস. এম শাহ নেওয়াজ প্রধান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে ইসলামের ইতিহাসে এম এ পাশ। দ্বিতীয় ছেলে আবু সাইক প্রধান কম্পিউটার গ্রাফিক্স-এ পড়াশোনা করছে। তৃতীয় ছেলে আবু আলমাস প্রধান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিষয়ে অনার্সে পড়ছে।বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে জনাব মজাহারুল হক প্রধান নিবেদিত।

নতুন প্রজন্মের কাছে তাঁর উপদেশ অন্যরা কি দিচ্ছে সেটা তোমার ভাবার বিষয় নয়, তুমি দেশকে কি দিচ্ছ সেটাই তোমাকে ভাবতে হবে। পিতা-মাতার প্রতি সব সময় শ্রদ্ধাবোধ দেখাবে।

ব্রিটেন, ভারত সফরকারী জনাব মজাহারুল হক প্রধান রাজনীতিতে আরও সহনীয় ও উদারতা প্রদর্শনের আহ্বান জানান।