নিজের সম্মানী ভাতা পূজা মন্ডপে অনুদান দিলেন এমপি বাবু

119
Social Share

আশরাফুল ইসলাম সবুজ,পাইকগাছা: খুলনা-৬ আসনের (পাইকগাছা-কয়রা) সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন আওয়ামী লীগ সরকার ধর্ম নিরপেক্ষতার ভিত্তিতে দেশ পরিচালনা করছে, এজন্য দেশের সকল ধর্মের মানুষ শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমূখর পরিবেশে ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করছে। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অসম্প্রদায়িক চেতনার উপর ভিত্তি করে দেশ স্বাধীন করেছিলেন। তিনি স্বাধীনতার পর ধর্ম নিরপেক্ষতার ভিত্তিতে দেশ পরিচালনা শুরু করেন। কিন্তু যারা মুক্তিযুদ্ধ ও ধর্ম নিরপেক্ষতা বিশ্বাস করে না তারাই সেদিন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে অসম্প্রদায়িক চেতনাকে দূরে ঠেলে দিয়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের রাষ্ট্র ক্ষমতায় প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। এমপি বাবু বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর জিয়াউর রহমান ও তার স্ত্রী খালেদা জিয়া নিজামী-মুজাহিদের গাড়িতে লাল-সবুজ পতাকা তুলে দিয়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতিকে বিনষ্ট করে ছিলেন। ২০০১ সালে ৪ দলীয় জোট সরকার অন্তসত্ত্বা গৃহবধূ থেকে শুরু করে সনাতন ধর্মালম্বীদের উপর হামলা ও অমানবিক নির্যাতন করে। এমনকি মুজিব চেতনায় বিশ্বাসী ও নৌকায় ভোট দেওয়ার কারণে সে দিন মুসলিম মা-বোন সহ কাউকে ছাড় দেয়নি জামায়াত-বিএনপি’র দোসররা। সেদিন নির্যাতিতদের পাশে দাড়িয়ে মহানুবতার পরিচয় দিয়ে ছিলেন শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে ধর্ম নিরপেক্ষার ভিত্তিতে দেশ পরিচালনা করে আসছে এ জন্য সাম্প্রদায়িক সম্প্রতিতে বাংলাদেশ সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় থাকলে দেশের কোন সম্প্রদায়ের মানুষ নির্যাতিত হবে না উল্লেখ করে এমপি বাবু সনাতন ধর্মালম্বীদের উদ্দেশ্যে বলেন, জাতি ধর্ম নির্বিশেষে আমরা সবাই মিলে দেশটাকে স্বাধীন করেছি। এই দেশে বসবাস এবং ধর্ম পালন করার জন্য সবার অধিকার রয়েছে। আপনারা কেউ দেশ ত্যাগ করবেন না। তিনি বলেন, আমি একজন খাটি মুসলমান, কিন্তু হৃদয়ে অসম্প্রদায়িক চেতনা ধারণ করে এলাকার উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে এগিয়ে নিতে এবং সমাজ থেকে অনিয়ম, ঘুষ-দুর্নীতি, নিয়োগ বাণিজ্য এবং অশুভ শক্তিকে দূর করতে কাজ করে যাচ্ছি। তিনি ডিজিটাল পাইকগাছা-কয়রা গড়ার কাজে সকলের সহযোগিতা কামনা করে সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান।রবিবার সকালে পাইকগাছা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলার বিভিন্ন পূজা মন্ডপে সরকারি অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। এসময় তিনি ব্যক্তিগত নিজের সম্মানিভাতার এক লাখ ঊনপঞ্চাশ হাজার টাকা ১৪৯টি পূজা মন্ডপে প্রদান করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সমীরণ সাধুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আনন্দ মোহন বিশ্বাসের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার ইকবাল মন্টু,উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি মোঃশাহরিয়ার হক, অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোঃজিয়াউর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিয়াবুদ্দীন ফিরোজ বুলু,জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ নেতা রমেন্দ্রনাথ সরকার ও উপজেলা পূজা পরিষদনেতা স্নেহেন্দু বিকাশ সহ উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ সহ সকল পূজা মন্ডপের নেতৃবৃন্দ।