নিকটতম সম্পর্কেরও পরিচর্যা প্রয়োজন: দোরাইস্বামী

Social Share

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেছেন, নিকটতম সম্পর্কেরও পরিচর্যা করা প্রয়োজন। চিরবন্ধুপ্রতীম প্রতিবেশী বাংলাদেশের সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্কের উত্তরোত্তর উন্নয়নে তাঁর সরকারের অগ্রাধিকারের প্রসঙ্গ তুলে ধরে এই কুটনীতিক বলেন, আমার সরকার আমাকে ঠিক তাই করার নির্দেশ দিয়েছে। আমি এবং আমার সহকর্মীরা এই অংশীদারিত্বকে সর্বস্তরে প্রচার করতে কোন সুযোগই ছাড়ব না। আমরা উভয় পক্ষের সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থার মাধ্যমে এই অংশীদারিত্বের পক্ষে সর্বোচ্চ সমর্থন জানাব।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে ভারতীয় হাই কমিশনারের বাসভবন ‘ইন্ডিয়া হাউসে’ দায়িত্ব গ্রহণের পর গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে প্রথম মতবিনিময়ে এসব কথা বলেন বিক্রম দোরাইস্বামী।

নবনিযুক্ত হাই কমিশনার বলেন, আমাদের বন্ধুত্ব কৌশলগত অংশীদারিত্বের অনেক উর্ধ্বে, কারণ এই বন্ধুত্ব রচিত হয়েছে অভিন্ন ত্যাগ, ইতিহাস, সংস্কৃতি এবং আত্মীয়তার অনন্য সম্পর্কের উপর ভিত্তি করে। তিনি উল্লেখ করেন, বাংলাদেশকে ভারত সর্বোচ্চ স্তরের গুরুত্ব দেয় এবং এটি কখনোই হ্রাস পাবে না।

বাংলাদেশে সামাজিক সূচকে উল্লেখযোগ্য উন্নতির ভূয়শী প্রশংসা করে হাই কমিশনার বলেন, বাংলাদেশের উন্নতির জন্য আমরা সমানভাবে সম্মানিত। দক্ষিণ এশিয়ার দ্রুততম গতিতে আপনাদের টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে আমরা অভিনন্দন জানাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্থনৈতিক সাফল্য বা ক্রিকেট পিচে টাইগারদের অপ্রতিরোধ্য মনোবল যাই হোক না কেন, সারা বিশ্ব বাংলাদেশকে নতুন সম্মানের সাথে দেখছে। আমরা নিকটতম প্রতিবেশী বাংলাদেশের এই উপযুক্ত স্বীকৃতিতে আনন্দিত।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে হাই কমিশনার বলেন, সীমান্ত হত্যা শূন্যের কোটায় নামিয়ে আনার ব্যাপারে ভারত প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং তার মেয়াদে প্রধান লক্ষ্য হবে দু’দেশের মধ্যে ‘কানেকটিভিটি’ জনগণের সঙ্গে জনগণের আরও সুসম্পর্ক বৃদ্ধি করা।

বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের বিমান চলাচলের বিষয়ে তিনি বলেন, বিমান চলাচল শুরু করার জন্য শিগগির বাংলাদেশ সরকারের সহায়তায় একটি বিশেষ ‘এয়ার বাবল’ ব্যবস্থা চালু করব। আমরা কোভিড মোকাবেলায় যৌথভাবে কাজ করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এর আগে, বৃহস্পতিবার বিকালে বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে নিজের পরিচয়পত্র পেশ করেন ভারতের নতুন এই হাই কমিশনার। এর মধ্যদিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে দূত হিসেবে বাংলাদেশে দায়িত্ব পালন শুরু করলেন তিনি।