নারী ও শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠায় গণমাধ্যমের ভুমিকার গুরুত্বারোপ

Social Share

রাজধানীর বাংলাদেশ ফটো সাংবাদিক এসোসিয়েশনের মিলনায়তনে নারী ও শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে গণমাধ্যম কর্মীদের সচেতন করার জন্য সাংবাদিকদের এক কর্মশালা মংগলবার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কর্মশালায় নারী ও শিশু বান্ধব পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করা হয়। গণমাধ্যমের সংবাদ ও মতামত উপস্থাপন করার সময নারী ও শিশু বান্ধব মনোভাব বজায় রাখার ক্ষেত্রে কর্মশালায় বেশ কয়েকটি সুপারিশ করা হয়েছে।

এইগুলি হল: নারী এবং শিশুদের ওপর সংবাদ এবং নিবন্ধ উপস্থাপনের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন; শিশু সাংবাদিকতাকে উৎসাহ প্রদান এবং এর জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ; সমাজের সকল পর্যায়ে শিশুদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা; শিশু অধিকার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার প্রদান করে শিশু সংবেদনশীল সাংবাদিকতা পরিচালনা করা; গণমাধ্যমে শিশু কর্নার স্থাপন করা।

এই সুপারিশগুলির মধ্যে রয়েছে প্রাসঙ্গিক আইন, বিধি এবং কর্মপরিকল্পনা শিশু সুরক্ষা ও কল্যাণে কতটুকু বাস্তবায়িত হচ্ছে সাংবাদিকদের ঘনিষ্ঠভাবে সেটা নজর রাখা উচিত; শিশু সংক্রান্ত সংবাদ প্রচারের ক্ষেত্রে গবেষণা বা গভীর অনুসন্ধান চালানো: এবং দেশে শিশু বান্ধব আদালত গঠনে গণমাধ্যমের ভূমিকা।

উন্নয়ন সংগঠন ’কমিউনিটি পার্টিসিপেসন এন্ড ডেভেলপমেন্ট (সিপিডি)’ শিশু পাচার প্রতিরোধে সমাজ ও নেটওয়ার্কিং শক্তিশালীকরণ কন্সোর্টিয়াম এর পক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের খন্ডকালীন শিক্ষক কাজী রওনাক হোসেন প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক একুশের বাণীর সিনিয়র সাংবাদিক কাজী আজিজুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সিপিডি’র প্রকল্প সমন্বয়কারী শরীফুল্লাহ রিয়াজ আমাদের সমাজে নারী ও শিশুদের অবস্থা ও গণমাধ্যমের করনীয় বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা এতে অংশ নেন।