নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাশের প্রয়োজন ছিল না: প্রধানমন্ত্রী

Social Share

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, আমরা বুঝতে পারিনি কেন ভারত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) পাশ করলো। এর প্রয়োজন ছিল না।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে গাল্ফ নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী তার এ মতামত জানান। গতকাল শনিবার মধ্যপ্রাচ্যের সংবাদমাধ্যমটি এ খবর প্রকাশ করেছে। প্রধানমন্ত্রী আরও জানান, ভারত থেকে এখনো কেউ বাংলাদেশে অভিবাসী হয়ে আসেনি। তবে ভারতের মধ্যেই মানুষ নানা ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছে।

ভারতে ১০ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনে বাংলাদেশ ও অন্যান্য প্রতিবেশী দেশে নির্যাতনের শিকার হওয়া অসুমলিম সংখ্যালঘিষ্ঠদের নাগরিকত্ব দেয়ার সুযোগ রাখা হয়েছে। ২০১৯ সালের ১১ ডিসেম্বর ভারতীয় সংসদে সেটি পাশ হয়।

এ আইনের ফলে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরের আগে ভারতে যাওয়া হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি, খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব লাভের সুযোগ করে দেবে।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সবসময় সিএএ ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি)কে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে দেখেছে। ভারত সরকারও বারবার জানিয়েছে এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয় এবং ২০১৯ সালের অক্টোবরে ভারত সফরের সময় দেশটির প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি ব্যক্তিগতভাবে আমাকে এ বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন।