ধুনটে আবারও গ্রেফতার হলেন স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি

25
Social Share

বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার ধুনটে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার কথা বলে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে দায়েরকৃত দুটি মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানা-মুলে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সুলতান মাহমুদকে (৩৬) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ধুনট জিরোপয়েন্ট এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সুলতান মাহমুদ ধুনট সদরপাড়া গ্রামের মৃত আজিজার রহমানের ছেলে।

জানা গেছে, সুলতান মাহমুদ ২০১৫ সালে ধুনট উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদ নিয়ে রাজনীতিতে প্রবেশ করে। পরবর্তীতে ২০১৭ সালে ধুনট উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদে নির্বাচিত হন। এরপর থেকেই দখলবাজি, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, তদবির, নিয়োগ বাণিজ্যসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন সুলতান মাহমুদ।

মন্ত্রী, এমপি, প্রশাসনিক ও বিভিন্ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের নাম ব্যবহার করে পুলিশ কনস্টেবল, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ, স্বাস্থ্য বিভাগসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার জাল ফেলে প্রায় অর্ধশত মানুষের কাছ থেকে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠে স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে।

এসব ঘটনায় থানা ও আদালতে একাধিক মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগীরা। এসব মামলায় একাধিক বার গ্রেফতারও হয়েছেন সুলতান। গত এক মাস আগে তিনি জামিনে কারাগার থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন।

বগুড়ার ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা জানান, সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে দুটি মামলার গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি ছিল। বৃহস্পতিবার বিকেলে ধুনট বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।