দেশের মাটিতে শেষ ম্যাচ: ভক্তদের ভালোবাসায় সিক্ত ধোনি

এতদিন বলা হচ্ছিল নিজ শহর রাঁচিতে শুক্রবার শেষ ম্যাচ খেলবেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। সেজন্য ঝড়খণ্ড ক্রিকেট সংস্থার পক্ষ থেকে অনেক আয়োজন করাও হয়েছিল। এবার জানা গেল, গতকালের এই ম্যাচটা শুধু ঘরের মাঠে নয়; ভারতের মাটিতেই ধোনির শেষ ম্যাচ হয়ে গেছে! কারণ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শেষ দুই ওয়ানডেতে বিশ্রামে পাঠানো হয়েছে ভারতকে দুটি বিশ্বকাপ এনে দেওয়া সাবেক এই অধিনায়ককে। বিশ্বকাপের আগে দেশে আর কোনো ওয়ানডে খেলবে না ভারত।

কোহালিদের ড্রেসিংরুমের কাছে আরও বড় ধাক্কা হচ্ছে, দেশের মাঠে দেশের হয়ে শেষ ম্যাচে মহেন্দ্র সিংহ ধোনিকে জয় উপহার দিতে না পারা। ৩২ রানে ভারতকে হারতে হয়েছে এদিন। জানা গেছে, ধোনি নাকি নিজেই ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন যে, দেশের মাঠে দেশের হয়ে তার শেষ ম্যাচ খেলতে চান নিজের শহরে। সেই কারণে মোহালি এবং দিল্লিতে শেষ দুই ম্যাচে খেলতে চান না। এই সিরিজে আর খেলছেন না মানে ভারতের হয়ে খেলবেন শুধু বিশ্বকাপে। তারপর দেশের নীল জার্সি তুলে রাখা মোটামুটি নিশ্চিত।

রাঁচীর ক্রিকেট ভক্তরা জানতেন, প্রিয় ধোনিকে জাতীয় দলের হয়ে আর দেখা যাবে না। তাই স্টেডিয়াম ভরে গিয়েছিল ৭ নম্বর জার্সিতে। সন্ধ্যায় ফ্লাডলাইটের আলোয় যখন তিনি ব্যাট করতে নামছেন সে সময় টিভি ক্যামেরা ফোকাস করল ঠিক সামনের ভিআইপি গ্যালারিতে। দেখা গেল স্ত্রী সাক্ষী ধোনি উঠে দাঁড়িয়ে হাততালি দিচ্ছেন। গোটা স্টেডিয়ামে মোবাইলের টর্টলাইট জ্বালিয়ে মোহময় করে তুললেন দর্শকেরা। এতদিন তিনি দেশের ক্রিকেটকে আলো দিয়ে এসেছেন। তাই শেষ বেলায় মাঠ আলোকিত করে প্রিয় তারকাকে স্মরণীয় বিদায় দিল ভক্তরা।

তবে শেষ ম্যাচে দল যেমন জিতেনি, তেমনি ব্যাট হাতে বেশিদূর যেতে পারেননি ধোনি। ৪২ বলে করেছেন ২৬ রান। কে জানত, স্পিন সামলানোর মাস্টারকে ধরাশায়ী করে দেবেন এক স্পিনার! শিশুসুলভ মুখের অ্যাডাম জাম্পা ধোনিকে ব্যাট-প্যাডে লাগিয়ে বোল্ড করে পুরো স্টেডিয়াম স্তব্ধ করে দেন। কোহলির ৪১তম সেঞ্চুরি সত্ত্বেও বাকীদের ব্যর্থতায় ৩২ রানে হারে ভারত। ম্যাচ শেষেও দেখা যায় সাক্ষী ধোনি দাঁড়িয়ে হাততালি দিচ্ছেন। কিছু পরাজয় তো স্মরণীয় হয়েও থাকে, তাই না?