দুর্বলরা শান্তির পথে হাঁটে না, চিনকে কড়া বার্তা মোদীর

Social Share

লাদাখ: ভারত-চিন উত্তেজনার মাঝেই আচমকা শুক্রবার সাতসকালে লাদাখে গেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এরসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন সিডিএস বিপিন রাওয়াত ও সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। ১১ হাজার ফুট উঁচুতে নিমু চেকপোস্টে স্থল, জল ও বায়ুসেনার জওয়ানদের সঙ্গে সীমান্ত পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। সেনা জওয়ানদের মনোবল বাড়াতেই প্রধানমন্ত্রী এদিন লাদাখ সফরে যান।

চিনকে কড়া বার্তা দিয়ে সেনা বাহিনীর মনোবল বৃদ্ধি করেন নমো। এক ইঞ্চি ভারতীয় ভূখন্ড যে চিনতে ছাড় দিতে ভারত কসুর করবে না তা এদিন স্পষ্ট করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সীমান্তে জওয়ানদের বীরত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। পাশাপাশি, নাম না করে চিনকে কড়া বার্তাও দেন নমো।

মোদী বলেন, সাম্রাজ্যবাদের যুগ শেষ হয়ে গিয়েছে। এটা বিকাশবাদের যুগ। বিকাশবাদই ভবিষ্যৎ। ইতিহাস সাক্ষী রয়েছে, সাম্রাজ্যবাদীরা শক্তি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে, নাহলে হার মেনেছে। নমোর কথায়, বীরত্ব শান্তির পূর্বশর্ত, যারা দুর্বল তারা কখনই শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারে না। সাহসীরা শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে পারে। ভারতীয় সেনা সেটাই করে দেখাচ্ছেন। বিশ্বের অন্য সব দেশের বাহিনীর চেয়ে ভারতীয় সেনারা শক্তিশালী সেটা প্রমাণ হয়েছে। আমি আপনাদের, প্রণাম করতে চাই। যাঁরা দেশের জন্য শহিদ হয়েছেন তাঁদের নমস্কার করতে চাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভারতীয় সেনার বাহু ততটাই শক্ত, যতটা শক্ত পর্বত আপনাদের ঘিরে রেখেছ। আপনাদের আত্মবিশ্বাস, বিশ্বাস ততটাই অটল যতটা একটা পর্বতের চূড়ায় থাকে। ভারত মাতার শত্রুরা আপনাদের প্রত্যাঘাত দেখেছে। এই পরিস্থিতিতে আপনারা আপনাদের সেরাটা দিয়েছেন।